ঢাকা : শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • সততার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে : সিইসি          নির্বাচনের তারিখ পেছানোর কোনো সুযোগ নেই : সিইসি          দুই দেশের সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাক : মমতা          জীবনমান উন্নয়নের শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছতে পারবে না : জয়
printer
প্রকাশ : ১১ অক্টোবর, ২০১৪ ১৭:৪৫:৪২
শাহানশাহ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারীর (ক:) বার্ষিক ওরশ ১১ অক্টোবর শনিবার
চট্টগ্রাম সংবাদদাতা


 


বিশ্বঅলি শাহানশাহ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারীর (ক:) বার্ষিক ওরশ শরিফ উপলক্ষে লাখো আশেক ভক্ত অংশগ্রহণে মুখরিত হয়ে উঠেছে মাইজভান্ডার শরিফ। আজ ১১ অক্টোবর শনিবার ওরশ শরিফের প্রধান দিবস। মাইজভান্ডার শরিফ গাউসিয়া হক মনজিলে ওরশ শরিফ উপলক্ষে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। মাইজভাণ্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রিয় পর্ষদের উদ্যোগে ওরশ শরিফের বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার মধ্যে রয়েছে বা’দে ফজর রওজা শরীফে গিলাফ চড়ানো, দিনব্যাপী খত্মে কুরআন,  জিকির-আজকার, মিলাদ মাহ্ফিল এবং রাত ১১টায় আলোচনা অনুষ্ঠান। ওরশ শরিফে আইন-শৃংখলা বজায় রাখার সুবিধার্থে সমন্বয়কের দায়িত্বে থাকবে ফটিকছড়ি উপজেলা প্রশাসন। ওরশ মাহফিলে সভাপতিত্ব এবং দেশ-জাতি ও বিশ্বের সার্বিক কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করবেন গাউসিয়া হক মন্জিলের সাজ্জাদানশীন রাহবারে আলম হযরত সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান মাইজভাণ্ডারী (মঃজিঃআঃ)। এছাড়া সকাল ১১টা হতে শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (ক:) ট্রাস্ট এর ব্যবস্থাপনায় ‘ইসলামের ইতিহাস ও ঐতিহ্য সম্বলিত দুর্লভ চিত্র ও ভিডিও প্রদর্শনী’ চলে। মাইজভাণ্ডারী গাউসিয়া হক মন্জিলের পক্ষ থেকে ওরশ শরীফে সকল ভক্ত-আশেকীনদের যোগদান করে রূহানী ফয়েজ বরকত হাসিল করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।
উল্লে¬খ্য, শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী(কঃ) হচ্ছেন অসি-এ-গাউসুল আ’যম হযরত মাওলানা শাহ্সুফি সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভাণ্ডারীর (কঃ) জ্যেষ্ঠ পুত্র। বহু রেয়াজত ও সাধনার পথ অতিক্রম করার পর ১৩৭৩ বাংলার ৯মাঘ ওরশ শরীফের প্রথম দিনে হযরত মাওলানা শাহ্সুফি সৈয়দ আহমদ উল্ল¬াহ্ মাইজভাণ্ডারীর(কঃ) স্বপ্নাদেশক্রমে তাঁর পিতা পীরে কামেল অসি-এ-গাউসুল আ’যম হযরত মাওলানা শাহ্সুফি সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভাণ্ডারী (কঃ) শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (কঃ) কে আনুষ্ঠানিকভাবে খেলাফত দানের মাধ্যমে শ্রেষ্ঠ অলির আসনে প্রতিষ্ঠিত করেন। হযরত গাউসুল আ’যম শাহ্সুফী সৈয়দ আহমদ উল্ল¬াহ্ মাইজভাণ্ডারী (কঃ) সাহেব, হযরত মাওলানা শাহ্সুফি সৈয়দ গোলামুর রহমান মাইজভাণ্ডারী (কঃ) সাহেব এবং অসি-এ-গাউসুল আ’যম হযরত মাওলানা শাহ্সুফি সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভাণ্ডারীর (কঃ) এ তিন আধ্যাত্ম খনির আমানত হচ্ছেন শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (কঃ)। হযরত গাউসুল আ’যম মাইজভাণ্ডারী (কঃ) স্বপ্নযোগে শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারীর (কঃ) মাথা মোবারকে তাজ পরানোর মাধ্যমে, হযরত বাবা ভাণ্ডারী (কঃ) স্বপ্নযোগে নিজ আধ্যাত্মিক পাঠশালায় ভর্তি করে এবং মুর্শিদে কামেল হযরত মাওলানা শাহ্সুফি সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভাণ্ডারী (কঃ) জালালী দৃষ্টির মাধ্যমে শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী(কঃ)কে মাইজভাণ্ডারী আধ্যাত্মিক শরাফতের জিম্মাদারি অর্পণ করেন এবং ফয়েজ-বরকত দান করেন।
শুক্রবার বাদে জুমা ওরশ শরিফ কর্মসূচির অংশ হিসেবে নাজিরহাট তেমুহনী মোড় এবং দরবার শরিফ শাহী গেইট সংলগ্ন স্থানে দু’টি আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন যাত্রী ছাউনী উদ্বোধন করেন পানি সম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিস বলেন, শাহানশাহ সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারী(ক) আজীবন মানুষের কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গীত করেন। তাঁর মাঝে কোনো পার্থিব লোভ-মোহ ও টাকা-পয়সার প্রতি আসক্তি ছিল না। নির্বিলাস জীবন যাপন তাঁর জীবনের বড় বৈশিষ্ট্য ছিল বলে তিনি উল্লেখ করেন। শাহানশাহ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারীর প্রদর্শিত পথ অনুসরণ করে মাইজভান্ডার শরিফ গাউসিয়া হক মনজিল, মাইজভান্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি ও শাহানশাহ সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারী (ক) ট্রাস্টের উদ্যোগে যাত্রী ছাউনী নির্মাণের মতো ধারাবাহিক জনকল্যাণমূখী নানা পদক্ষেপের প্রশংসা করেন তিনি। যাত্রী ছাউনী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হাটহাজারী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহাবুবুল আলম চৌধুরী, মাইজভান্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় পর্ষদের সভাপতি রেজাউল আলী জসীম চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার কামালুর রহমান, শেখ মুজিবুর রহমান বাবু, ট্রাস্টের সচিব এ.এন.এম.এ মোমিন সহ প্রশাসনের পদস্থ ব্যক্তিবর্গ ও বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগণ।
 

printer
সর্বশেষ সংবাদ
ধর্মতত্ত্ব পাতার আরো খবর

Developed by orangebd