ঢাকা : সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • জাতীয় নির্বাচন ২৩ ডিসেম্বর          নির্বাচনের তারিখ পেছানোর কোনো সুযোগ নেই : সিইসি          আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার বুধবার থেকে নেবেন প্রধানমন্ত্রী          দুই দেশের সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাক : মমতা          জীবনমান উন্নয়নের শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছতে পারবে না : জয়
printer
প্রকাশ : ২০ মার্চ, ২০১৫ ২১:০৪:৩২
দেশ সেরা আত্মনির্ভরশীল নারী বেনাপোলের বুলিনা
এম এ রহিম, বেনাপোল

 
নারী সমাজের বোঝা নয় কল্যানের অগ্রযাত্রা ও আত্মনির্ভলতায় সৃষ্টি ও মমত্বের ধারায় নারী। নারীকে অবজ্ঞা উপেক্ষা ও ফেলে দেওয়ার নয় দেশ জাতি ও সমাজ নির্মানে নারীরা এগিয়ে চলেছে। তার ধারা বাহিকতায় বেনাপোলের এক প্রতিবন্ধি নারী বুলিনা বেগম ২০০ টাকা পুঁজি নিয়ে নিজের দক্ষতা সৃষ্টি মেধা দিয়ে তার সুচারু কাজের মাধ্যমে ৫শতাধিক নারীকে আত্মনির্ভরশীল ও স্বালম্বী করে তুলেছেন। আজ দেশ সেরা পদকে ভূষিত হয়েছেন বুলিনা ব্গেম। প্রতিদিন তার কাছে প্রশিক্ষন নিচ্ছে এলাকায় কিশোরী শিক্ষার্থী ও গৃহবধুরা। তার নিপুন হাতের কাজে মুগ্ধ হচ্চে সবাই। বাড়ছে তার পন্যের চাহিদা বিপনন। ২০১৫সালের ১১মার্চ জাতীয় পর্যায়ে আত্মনির্ভরশীল নারীদিবসের সেমিনারে কর্মদক্ষতা পর্যাবেক্ষন ও আত্মনির্ভরশীল শ্রেষ্ট নারী হিসাবে বুলিনাকে স্বীকৃতি দেয় বাংলাদেশ সরকার।

অভাবের সংসারে ২০০ টাকা পুঁজি নিয়ে চুংকি পুথি দিয়ে সেলাই ও কারুকার্য্যরে কাজ শুরু তার। সবুজের অরন্যে ঘেরা খরকুটা দিয়ে ঘেরা বেড়ার মধ্যে ছোট একটি বাড়ীতে থাকে বুলিনা বেগম (জালা) (২৫)। বেনাপোল গ্রামের হাবিবুর রহমান হাবিব এর মেয়ে সে। প্রতিবন্ধি বুলিনার ১১ বছর আগে পাশের গয়ড়া গ্রামে বিবাহ হয়। কোল জুৃড়ে আসে একটি প্রতিবন্ধি পুত্র সন্তান। স্বামী নাসির উদ্দিন তাকে ফেলে চলে গেছে বহুদূরে। আজ বুলিনা নিজেকে আত্মনির্ভশীল করতে তার বুদ্ধি কর্মদক্ষতা মেধা দেশ সেরা আত্মনির্ভরশীল নারী বেনাপোলের বুলিনা
দিয়ে সুদক্ষ হাতে করে চলেছে চুংকি রাবার পুথি দিয়ে কারুকার্য খচিত বিভিন্ন ডিজাইনের কাজ। ব্লাউজ শাড়ী থ্রিপিস, ভ্যাটিটি ব্যাগ সহ হরেক রকম পরিধেয় ও ব্যাবহার্য্য পন্য। বাড়ীতেই করেন সিলাই মেশিনের কাজ। তার সুন্দর হাতের কাজ দেখে এলাকার কয়েক শত নারী, কিশোরী ও শিক্ষার্থীরা কাজ শিখছেন। তার কাছে কাজ শিখে আত্মনির্ভর সহ স্বালম্বি হয়েছেন আনেক নারী। বুলিনা বেনাপোল পৌরসভার নারী কর্নার থেকে সহযোগিতা পেয়ে অর্জন করেছে দেশ সেরা পুরস্কার। আজ প্রতিবন্ধি বুলিনা দেশের শেষ্ট্র আত্মনির্ভরশীল নারী। পৌরবাসিকে রাষ্ট্রের কাছে সন্মানিত ও গৌরবান্বিত করায় শুক্রবার বিকেলে তাকে বেনাপোল পৌর নাগরিক গন সংবর্ধনার আয়োজন করে পৌর কর্তৃপক্ষ।
নারীর ক্ষমতায়নে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। কর্মস্থানের উদ্ধুদ্ধকরনে কাজ করছে বিভিন্ন এনজিও সংগঠন। বুলিনা বেনাপোলের একজন মডেল নারী।
বেনাপোল পৌর কাউন্সিলর আলহাজ্ব মিজানুর রহমান বলেন, পৌর নারী কন্যার থেকে বিভিন্ন আনাচে কানাচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা নারীদের এনে আত্মনির্ভরশীল করতে বিভিন্ন প্রশিক্ষন দেওযা হয়। প্রতিবন্ধি নারী বুলিনা দেশসেরা নারী খেতাবে ভ’ষিত হয়ে নারী সমাজকে জাগ্রত সহ বেনাপোলের মান উজ্জল করেছেন। পৌর কর্তৃপক্ষ নারীদের প্রতিভা বিকাশে ও আত্মনির্ভরশীল করতে কাজ করে যাচ্ছে।
দেশ সেরা নারী বুলিনা বেগম বলেন, আমার রুগ্ন শরীর নিয়ে বাড়ীতে বসেই শিখেছি  ও বুনেছি হাতের তৈরী বিভিন্ন পোষাক। রুপ দিয়েছি বিভিন্নভাবে। ৫শতাধিক নারীকে শিখিয়েছি সুতা চুংকি বুরুজ শিল্পের কাজ। আজ অনেকে হয়েছেন স্বাবলম্বি। সরকার তার মত এক প্রতিবন্ধি মেয়েকে দেশ সেরা পদক দিযে নারী সমাজের সন্মান উজ্জল করেছেন। তিনি সরকারের পিষ্ট পোষকতা কামনা করেন।  দেশ সেরা আত্মনির্ভরশীল নারী বেনাপোলের বুলিনা
তার কাছে কাজ শিখতে আসা বেনাপোলের গৃহবধু লিপি খাতুন-তার কাজ দেখে  অভিভ’তি হয়েছি। আজ তার মতো অনেক গৃহবধু অবসর সময়ে বুলিনার কাছে আসেন হাতের কারুকার্র্য্য কারজ শিখতে।
কাজ শিখতে আসা ৬ষ্ট শ্রেনীতে পড়ুয়া ছাত্রী ফারহানা জেসমিন বলেন, তাদের খুব ভাল লাগে চংকি পুথির কাজ। বিকালে তারা শিখতে আসে কাজ। একই কথা বলেন সহ বন্ধু   আজমিরা রিতি।
বুলিনা  তৈরী পোষাক নিতে আসা ক্রেতা জ্যোসনা খাতুন বলেন, তার কাজ সবার নজন কাড়ে। অল্প মূল্যে সুন্দর কাজের শাড়ী থ্রিপিস পাওয়া যায়। তার দর্জির কাজের প্রশাংসা করেন তিনি। বুলিনার মা মরিয়ম খাতুন বলেন, অভাবের সংসারে  বুৃলিনা এক অসুস্থ্য মেয়ে হয়েও তার কাজ দিয়ে দেশ সেরা হয়েছে এরমতো আর কোন শান্তি ও পুরস্কার নেই বলে জানান তিনি। তবে সরকারের আর্থিত অনুদান পেলে বুলিনা আরো বড় বড় কাজ করতে পারবে বলে আশা করেন তিনি।
তার বাবা হাবিবুর রহমান হাবিল বলেন, মেয়ে খুব কর্মিষ্ট। ৪র্থ শ্রেনীর পর স্কুলে যাওয়া হয়নি তার। আজ পৌর সভার সহযোগিতা ও নিজের কর্মদক্ষত্ আত্মনির্ভরশীল নারী হিসাবে দেশ ও এলাকার মান উজ্বল করেছে। এজন্য পৌর মেয়র সহ সরকারকে ধান্যবাদ ও এলাকাবাসীর কাছে দোয়া চান তিনি।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
বিশেষ প্রতিবেদন পাতার আরো খবর

Developed by orangebd