ঢাকা : মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০

সংবাদ শিরোনাম :

  • এইচএসসি পরীক্ষায় বিষয় সংখ্যা কমানোর চিন্তা চলছে : শিক্ষামন্ত্রী          কোরোনায় আরও ৩৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৫০৪ জন          যুক্তরাষ্ট্র আর লকডাউন হবে না : ট্রাম্প          করোনাভাইরাস সারাবিশ্বটাকে স্থবির করে দিয়েছে : হাসিনা          স্ত্রীসহ হাসপাতালে ভর্তি মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী          করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ব্যাংক ঋণের ২ হাজার কোটি টাকা সুদ মওকুফ ঘোষণা
printer
প্রকাশ : ১২ মে, ২০১৫ ১৫:১৫:০৯আপডেট : ১২ মে, ২০১৫ ১৬:১৮:২৪
ঢাকা ইপিজেডের ফুটপাত বেদখল, কর্তৃপক্ষ নীবর
আশুলিয়া সংবাদদাতা


 


ঢাকা ইপিজেডের সামনের ফুটপত বেদখল হওয়ায় শ্রমিকদের যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। নারী শ্রমিকদের রাস্তা পারাপারে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। নতুন ও পুরাতন জোনের সামনে দুটি ওভার ব্রিজ থাকলেও শ্রমিক ও সাধারন জনগণ তা কালে ভদ্রেও ব্যবহার করে না। কোটি টাকা ব্যায়ে আশুলিয়ায় অবস্থিত একাধিক ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পুড়েছে। সাধারণ জনগণ ওভার ব্রিজ দিয়ে যাতায়াত করতে সন্ধ্যার পরে ভয় পায়। কারণ এ সকল ওভার ব্রিজের উপর সকাল সন্ধ্যা গাঁজা ও মদের আসর বসে নেশাখোরদের দখলে চলে যায়। ঢাকা ইপিজেডের সামনের ওভার ব্রিজ দুটি। প্রশাসনের সামনে মদ, জুয়া ও ছিনতাইয়ের মত ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটলেও যেন  কারও তাতে মাথা ব্যাথা নেই। তবে মাঝে মধ্যে সওজের লোকজন ফুটপাত ভেঙ্গে দিলেও পরের দিন আবার তা বেদখলে চলে যায়।
বিশেষ করে ঢাকা ইপিজেডের সামনে পূর্ব পাশের রাস্তা ও জুট জবর দখল করে বরিশালের চাঁদাবাজ জাহাঙ্গীর ও তার সহযোগী আতিক সহ ১৫/২০ জন মিলে ফুটপাত দখল করে ৩/৪ শত টোং দোকান নির্মাণ করে ফুটপাত দখল করে রেখেছে। জানাগেছে এ সকল টোং দোকান থেকে প্রতি মাসে চাঁদাবাজ জাহাঙ্গীর ও তার সহযোগিরা ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত চাঁদা উত্তোলণ করে। সরকারি জায়গা জবর দখল করে আশুলিয়া থানার ক্যাশিয়ার ফিরোজকে ম্যানেজ করে স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা লতিফ মন্ডলের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী জাহাঙ্গীর প্রতিমাসে লাখ লাখ টাকা চাঁদা উত্তোলন করে থাকে। বৎসরের পর বৎর জাহাঙ্গীর ও তার সহযোগী আতিক, আবুল, রিপন ও লতিফ মন্ডলের লোকজন চাঁদা উত্তোলন করে থাকে। থানা প্রশাসন এ ব্যাপারে একেবারে নিরব। তবে লতিফ মন্ডল চাঁদাবাজের সাথে জড়িত নয় বলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানিয়ে দেন। ঢাকা ইপিজেডের মত একটি রক্ষণশীল ও শতভাগ রপ্তানিমূখী গার্মেন্টস শিল্প এলাকা সংস্থার সামনে কিভাবে ও কেন ক্ষমতাবলে জাহাঙ্গীরের মত একজন চাঁদাবাজ জবর দখল করে রাখে তা নিয়ে এলাকাবাসী রীতিমত বিস্ময় প্রকাশ করেছে।
খোঁজ খবর নিয়ে আরো জানা গেছে, জাহাঙ্গীরের বাড়ি বরিশাল। সে দুই বছর পূর্বেও ফুটপাতে একজন হকার ছিল। স্থানীয় কয়েকজন আওয়ামীলীগ কর্মীর সাথে হাত মিলিয়ে সে বরিশালের কয়েকজন লোকজন নিয়ে কৌশলে ঢাকা ইপিজেডের সামনের ফুটপাত জবর দখল করে তিন শতাধিক টোং দোকান নির্মাণ করে। প্রতি দোকান থেকে ১০/ ২০ হাজার টাকা অগ্রীম নিয়ে সে সরকারি জমির ওপর থেকে দোকান প্রতি ৫/৭ শত টাকা করে ভাড়া আদায় করে থাকে।
নাম না প্রকাশের শর্তে,  ইপিজেডের একাধিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী জানান, জাহাঙ্গীর একজন সন্ত্রাসী। তার ৩০/৪০ জনের একটি সন্ত্রাসী দল রয়েছে। যাদের ব্যবহার করে সে সন্ত্রাসী কাজ চালায়।
এ দিকে ফুটপাত দখল হওয়ায় গার্মেন্টস দুটির পরে ঢাকা ইপিজেডের শ্রমিকদের রাস্তা পার হতে গিয়ে চরম দূর্ভোগে পড়তে হয়। অপর দিকে অস্থায়ী ট্রাক স্ট্যান্ডও নির্মাণ করে ইপিজেডের সামনের রাস্তা-ঘাট জবর দখল করে রাখায় শ্রমিক ও সাধারন জনগনের দুর্ভোগের যেন শেষ নেই।
এ ব্যাপারে জাহাঙ্গীর জানায়, সে আশুলিয়া থানার ক্যাশিয়ার ফিরোজকে প্রতিমাসে ৩০ হাজার টাকা চাঁদাা দিয়ে থাকে। ফিরোজ অবশ্যই চাঁদা গ্রহণের কথা অস্বীকার করেছে। ঢাকা ইপিজেডের কোন কর্মকর্তা এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজি হননি।
অপরদিকে, ফুটপাত বেদখল ও চাঁদা উত্তোলনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে প্রায় সংঘর্ষ হয়। সম্প্রতি গোলাগুলির ঘটনাও ঘটেছে। লুট হয়েছে জামাল নামের একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর দোকানপাট। এলাকাবাসী জানায়, চাঁদাবাজ জাহাঙ্গীর ও তার সহযোগীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনলে ফুটপাত দখল মুক্ত হবে। অন্যদিকে শ্রমিকদের যাতায়াতে দুর্ভোগ কমবে। কারণ জাহাঙ্গীর পুলিশের কাছে গ্রেফতার হলে ফুটপাত দখল মুক্ত হওয়ার পাশাপাশি চাঁদাবাজিও বন্ধ  হবে। এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, আশুলিয়ায় কোন চাঁদাবাজির অভিযোগ পেলে তাৎক্ষনিকভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। থানার ক্যাশিয়ার কোন টাকা পয়সা নেয় বলে তার জানা নেই বলে তিনি জানান। তবে চাঁদাবাজ জাহাঙ্গীরকে আটক করতে এলাকাবাসী পুলিশের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
বিশেষ প্রতিবেদন পাতার আরো খবর

Developed by orangebd