ঢাকা : শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর          ডিএসসিসির ৩,৬৩১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা          রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর          সংলাপের জন্য ভারতকে ৫ শর্ত দিল পাকিস্তান          এরশাদের শূন্য আসনে ভোট ৫ অক্টোবর          বাংলাদেশে আইএস বলে কিছু নেই : হাছান মাহমুদ
printer
প্রকাশ : ১৬ মে, ২০১৫ ১২:৩৩:৫৭আপডেট : ১৭ মে, ২০১৫ ১৫:০৭:২৮
রিসালতের স্বীকৃতি ছাড়া আল্লাহর একত্ববাদে বিশ্বাস মূল্যহীন
মাইজভাণ্ডারী একাডেমির রূহানী সংলাপে সভাপতির বক্তব্য রাখছেন গবেষক এ এন এম এ মোমিন


 


শাহানশাহ্ হযরত জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (ক.) ট্রাস্টের অঙ্গসংগঠন মাইজভাণ্ডারী একাডেমি কর্তৃক ১৩ মে, হামজারবাগস্থ একাডেমির মিলনায়তনে রূহানী সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। সংলাপের বিষয়বস্তু ছিল ‘তৌহিদ সম্পর্কে ইসলামী দৃষ্টিভঙ্গী ও অন্যান্য মতবাদ - একটি তুলনামূলক বিশ্লেষণ’। ট্রাস্টের সচিব এ এন এম এ মোমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ রূহানী সংলাপের আলোচক ছিলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাওলানা মুহাম্মদ জাফর উল্লাহ, ইসলামী চিন্তাবিদ অধ্যক্ষ আল্লামা গোলাম মুহাম্মদ খান সিরাজী, আল্লামা মোহাম্মদ শায়েস্তা খান আল-আজহারী। সংলাপ সঞ্চালনায় ছিলেন একাডেমির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মীর মুহাম্মদ তরিকুল আলম।
রূহানী সংলাপে বক্তারা বলেন, তৌহিদের মূল কথা হচ্ছে আল্লাহ্ একক, সার্বভৌম একক ক্ষমতার অধিকারী। তিনি অদ্বিতীয় স্রষ্টা, তাঁর কোন শরিক নেই। সৃষ্টিতে তাঁর কোন অংশীদার নেই। তিনি কারো মুখাপেক্ষী নন। এ তৌহীদের প্রকাশ ঘটেছে হযরত রাসূলে করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের শিক্ষার মাধ্যমে। সাহাবায়ে কিরামের আচরণের মধ্যে তৌহিদের বিকাশ ঘটেছে। তৌহিদকে বুঝতে হলে রাসূলে করীম (দ.)’র শিক্ষা, সাহাবায়ে কিরামের জীবনাচরণ ও আল্লাহর ওলীগণের আদর্শকে অবলম্বন করতে হবে। রিসালতের স্বীকৃতি ছাড়া তৌহিদ তথা আল্লাহর একত্ববাদের ওপর বিশ্বাস মূল্যহীন। বক্তারা বলেন, আমাদের দেশে কিছু লা’মাজহাবী, সালাফী ও আহলে হাদিস তৌহিদের নামে যে প্রচারণা চালায় তা তৌহিদ সম্পর্কে নবী-রাসূলদের শিক্ষার বিপরীত। এ বিষয়ে সকল মুসলমানকে অবশ্যই সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে। আলোচক অধ্যাপক মাওলানা জাফর উল্লাহ বলেন, নিজেকে জানতে পারলে আল্লাহ্ পাককেও জানা ও চেনা যায়। আল্লাহর অস্তিত্ব সৃষ্টি জগতের সর্বত্র বিরাজমান এটাই হচ্ছে তৌহিদের মূল কথা। অধ্যক্ষ মাওলানা গোলাম মোহাম্মদ খান সিরাজী বলেন, নবী অলীর প্রতি শ্রদ্ধা ও স্বীকৃতি ছাড়া তৌহিদের কোন মূল্য থাকতে পারেনা। নবী অলির প্রেমের মাধ্যমে ঈমান আকীদাকে মজবুত করতে হবে। সভাপতির বক্তব্যে ট্রাস্ট সচিব এ এন এম এ মোমিন বলেন, বর্তমান দ্বন্দ্ব সংঘাত ও ঈমান আকীদা বিষয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টির কবল থেকে বাঁচতে হলে কোরআন সূন্নাহর গভীর অধ্যয়ন ও চর্চা জরুরি।  তিনি সবাইকে গভীর পড়াশোনার মাধ্যমে ঈমান আকীদার মতো জটিল বিষয়ে সমাধান আসার তাগিদ দেন। সংলাপ অনুষ্ঠানে আলোচকরা প্রাসঙ্গিক নানা বিষয়ে শ্রোতাদের প্রশ্নের উত্তর দেন। সংলাপের শুরুতে পবিত্র কুরআন ও নাত পেশ করেন মোহাম্মদ মুজিবুল হক। সভায় মাইজভাণ্ডারী একাডেমির সদস্যসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাসিক আলোর দ্বারার সহ সম্পাদক প্রাবন্ধিক ওয়াহেদ আলম, মাওলানা মাসুম কামাল আল-আজহারী, অধ্যাপক মাওলানা রেজাউল করিম, শাহেদ আলী চৌধুরী, এইচ এম রাশেদ খান, দৈনিক আজাদীর সম্পাদনা সহকারী আ ব ম খোরশিদ আলম খান, মোহাম্মদ আবুল মুনছুর, এম মাকসুদুর রহমান হাসনু, ডাঃ হাসান মুরাদ, লায়ন ডাঃ বরুণ কুমার আচার্য্য বলাই প্রমুখ। বিপুল সংখ্যক শ্রোতা রূহানী সংলাপে উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

printer
সর্বশেষ সংবাদ
ধর্মতত্ত্ব পাতার আরো খবর

Developed by orangebd