ঢাকা : শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • মেক্সিকোতে ভূমিকম্প : নিহত ২৪৮          রোহিঙ্গাদের ব্যাপার ঐক্যবদ্ধ হতে ওআইসি’র প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান          দু-এক দিনের মধ্যে চালের দাম কমবে : বাণিজ্যমন্ত্রী          রোহিঙ্গাদের প্রতি আন্তরিকতার কমতি নেই : ওবায়দুল কাদের          রোহিঙ্গারা ক্যাম্প ত্যাগ করলে অবৈধ বলে গণ্য হবেন : আইজিপি          রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ নৈতিক সাফল্য অর্জন করেছে : রুশনারা আলী
printer
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট, ২০১৫ ১৫:৪২:১৩আপডেট : ১৩ আগস্ট, ২০১৫ ১৫:৫৩:০১
সহজ-সরল লোক না বুঝে অবৈধ পথে বিদেশে পাড়ি দেয় : পারুল আক্তার


 

পারুল আক্তার; দেশের জনশক্তি রপ্তানিকারকদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সিস- বায়রার ভাইস প্রেসিডেন্ট-৩ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি সৃজিতা ওভারসিজ এর সত্ত্বাধিকারী। জনশক্তি রপ্তানি ব্যবসার পাশাপাশি তিনি কাস্টমস ক্লিয়ারিংস অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং ব্যবসার সাথে জড়িত। তিনি রাজিব এন্টারপ্রাইজ এরসত্ত্বাধিকারী। এছাড়াও তিনি দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নমূলক বিভিন্ন সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি জাতীয় রাজনীতির সাথেও সম্পৃক্ত। তিনি বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগ মহানগর (উত্তর) এরত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক, এফবিসিসিআই জেনারেল মেম্বার, বাংলাদেশ ফ্লাইং ক্লাব এর আজীবন সদস্য, বৃহত্তম ফরিদপুর ক্লাব এর আজীবন সদস্য। এছাড়াও তিনি জাতীয় শিশু-কিশোর সংগঠনশাপলা কুঁড়ির আসর এর সভানেত্রী, বঙ্গবন্ধু শিশু একাডেমী (জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ) এর শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক পরিচালক, জাতীয় চার নেতা পরিষদের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এবং মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের মহিলা সম্পাদক হিসেবেও একসময় দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি একদিকে রাজনীতিক অন্যদিকে ব্যবসায়িক ব্যক্তিত্ব। তাই দেশের রাজনীতি ও ব্যবসায়িক বিষয়ে তার রয়েছে বাস্তব অভিজ্ঞালব্দ জ্ঞান। বহুমুখী গুণের অধিকারী পারুল আক্তার গোপালগঞ্জের এক সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। সম্মানিতা পারুলের পিতা মরহুম ইউনুছ আলী এবং মায়ের নাম হাসিনা বেগম। তিনি ৫ সরুানের গর্বিত জননী। তার সরুান মো. জাকির হোসেন বাংলাদেশে আইন, জাহাঙ্গীর হোসেন লন্ডনে বার প্রফেশনাল ট্রেনিং কোর্স, আরিফ হোসেন আমেরিকায় প্রশিক্ষন পাইলট, আসিফ ইকবাল আইইউবিতে ইঞ্জিনিয়ারিং অধ্যয়ন করছেন এবং একমাত্র কন্যা আফরোজা স্বামী নিয়ে সুখী পরিবার যাপন করছেন। সম্প্রতি পারুল আক্তার টাইমওয়াচ প্রতিনিধিকে দেশের সমসাময়িক বিষয়ে একটি সাক্ষাৎকার প্রদানকরে। তার দেওয়া সাক্ষাৎকারের গুরুত্বপূর্ণ অংশ এখানে উপস্থাপন করা হলো। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন এ কে নাহিদ
টাইমওয়াচ : শুরুতেই আপনার ব্যবসায়িক জীবন শুরুর প্রেক্ষাপট জানতে চাইছি।
পারুল আক্তার : আমি মূলত ১৯৯২ সালে ব্যবসায়িক জীবনে প্রবেশ করি। আমি সর্ব প্রথম কাস্টম সক্লিয়ারিংসঅ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং ব্যবসা শুরু করি। পরবর্তীতে সাথী হ্যান্ডিক্র্যাফটস ব্যবসা শুরু করি। এসব ব্যবসা পরিচালনার পাশাপাশি ২০১০ সাল থেকে আমি জনশক্তি রপ্তানির ব্যবসা করি।সহজ-সরল লোক না বুঝে অবৈধ পথে বিদেশে পাড়ি দেয় : পারুল আক্তার
টাইমওয়াচ : আপনি একজন নারী হয়ে জন শক্তির মতো চ্যালেঞ্জিং ও কঠিন ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত; এ প্রেক্ষাপটে দেশের জাতীয় অর্থনীতিতে জনশক্তি রপ্তানির ব্যবসা কী ধরনের অবদান রাখছে বলে আপনি মনে করছেন?
পারুল আক্তার : দেশের জাতীয় অর্থনীতিতে জনশক্তি রপ্তানির ব্যবসা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে এদেশের লোকজন কাজ করে তাদের উপার্জিত রেমিটেন্স দেশে পাঠাচ্ছে। এটি আমাদের দেশের জন্য অনেক বড় অবদান। জনশক্তি রপ্তানির ব্যবসা জাতিকে যে অবদান দিচ্ছে তা অনেক বড় একটি দিক। একজন রিক্রুটিং লাইসেন্সের মালিক যখন লাইসেন্স পান তখন থেকেই তিনি ব্যবসায়িক প্রয়োজনে ট্রাভেল এজেন্সি, টেনিং সেন্টারসহ মেডিক্যাল সেন্টার করছেন। এতে দেশের অভ্যন্তরেও অনেক লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে। একজন কর্মী যখন বিদেশে প্রেরণ করা হয় তখন তার পাসপোর্ট, টিকিট করা হয়। এখান থেকে সরকার ট্যাক্স পায়। আমরা সরকারের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। আজকে গ্রাম-গঞ্জে তাকালে দেখা যায়, অনেক বাড়িতে বিল্ডিং আছে। এগুলো কারা করছে। বৈধভাবে যারা যারা বিদেশে যাচ্ছে তার তাদের উপার্জিত টাকা দিয়ে তাদের পরিবারের জন্য বিল্ডিং করতে পারছে। তার ফ্যামিলি খুব সচ্ছলভাবে জীবনযাপন করছে। তাদের সরুান-সরুতিদেরকেও প্রাথমিক শিক্ষা থেকে শুরু করে উচ্চ শিক্ষায়ও শিক্ষিত করছে এই বিদেশে কাজ করে পরিশ্রমলব্ধ অর্থ পাঠিয়ে। আগে গ্রামের অনেক লোক তিন বেলা খেতে পারতোনা। এখন তারা বিদেশে চাকরি করে সুন্দর জীবনযাপন করছে। বিদেশে চাকরিকরা এসব লোকরে পাঠানো রেমিটেন্সে দেশের অর্থনীতি চাঙ্গা হচ্ছে।
টাইমওয়াচ : আপনার সাথে আমিও এক মত যে, বিদেশে চাকরি করা এসব লোকদের পাঠানো রেমিটেন্সে দেশের অর্থনীতি চাঙ্গা হচ্ছে। তবে সম্প্রতি একটি বিষয় লক্ষণীয় যে, অবৈধ পথে বিদেশে মানবপাচার হচ্ছে। এ বিষয়টিকে আপনি কিভাবে দেখছেন?
পারুল আক্তার : এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। মানবপাচার বন্ধে প্রিন্ট-ইলেকট্রিক মিডিয়া, রিক্রুটিং ব্যবসায়ী তথা বায়রাসহ দেশের সর্বস্তরের মানুষ কাজ করে যাচ্ছে। আপনি নিশ্চয় অবগত যে, গ্রাম-গঞ্জের কিছু অশিক্ষিত সহজ সরল লোক না বুঝে দালালদের শরণাপন্নহয়ে অবৈধপথে বিদেশে পাড়ি দেয়ার সুযোগ নেয়। মাননীয় প্রবাসী কল্যান এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী এ বিষয়ে জোরালো পদক্ষেপ নিয়েছেন যাতে অবৈধ ভাবে কেউ আর বিদেশ পাড়ি দিতে না পারে।সহজ-সরল লোক না বুঝে অবৈধ পথে বিদেশে পাড়ি দেয় : পারুল আক্তার
টাইমওয়াচ : আপনার দৃষ্টিতে, এই অশিক্ষিত জনগোষ্ঠীকে কিভাবে কাজে লাগানো সম্ভব?
পারুল আক্তার : এজন্য সরকার চেষ্টা করে যাচ্ছে। আমরা বর্তমানে জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উদ্যোগে জনশক্তি রপ্তানি সেক্টরে অনেক নিয়মশৃঙ্খলার মধ্যে ব্যবসা করছি। আমরা বিভিন্ন দেশে লোক পাঠাচ্ছি। এক্ষেত্রে আমরা অসংখ্য অশিক্ষিত মানুষকে বিভিন্ন ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে দক্ষতা অর্জন করিয়ে বিদেশে প্রেরণ করছি।
টাইমওয়াচ : এক্ষেত্রে যারা অবৈধভাবে বিদেশে যাওয়ায় পাচারকারীর শিকার হচ্ছে। এই অবৈধ মানবপাচারের ফলে বৈধ জন শক্তি রপ্তানিতে কী ধরনের প্রভাব পড়ছে বলে আপনি মনে করেন?
পারুল আক্তার : মানবপাচার বিষয়টি মানুষ বুঝেনা। বৈধপথে সরকারের মনোনীত আমরা যারা ব্যবসা করি অবৈধ পথে পাচারের ফলে আমাদেরও পরও বদনাম এসে যায়। অবৈধপাচার সম্পর্কে আমরা আগে কিছুই জানতামনা। এখন সাংবাদিকদের কল্যাণে আমরাতা জানতে পারছি। এই অবৈধ মানবপাচার বৈধ জনশক্তি রপ্তানিতে ব্যাপক নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে বলে আমি মনে করি। তবে সরকার অবৈধ মানবপাচার বন্ধ করার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
টাইমওয়াচ : অবৈধ মানবপাচার বন্ধে আপনার অভিমত কী?
পারুল আক্তার : পত্র-পত্রিকায় আপনারা লিখছেন। তারপরও কিছুকিছু অবৈধ পাচার হয়। সরকার ব্যাপকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সেই সাথে গ্রাম-গঞ্জের মেম্বার, চেয়ারম্যান এবং থানার সহযোগিতা নিয়ে প্রতিটি গ্রামে গ্রামে সভা, ব্যানার, ফেষ্টুন, মিডিয়ার মাধ্যমে বায়রা লোকজন সাথে নিয়ে অবৈধ পাচারের ক্ষতিকর দিকগুলো প্রচার চালিয়ে জনগণকে সচেতন করতে হবে। আমি আশাবাদী, দেশের সাংবাদিক, বায়রা এবং সরকারসহ জনগণ যদি সতর্ক থাকে তাহলে আগামীতে মানুষ অবৈধ পাচারের শিকার হবেনা। এখন অবৈধ পাচার অনেক কমে গেছে। আশাকরি, সামনের দিনগুলোতে আর অবৈধ পাচার হবেনা।
 
টাইমওয়াচ : দেশের বিভিন্ন ট্রানজিট পয়েন্ট দিয়ে মানবপাচার হচ্ছে। এক্ষেত্রে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কী ধরনের ভূমিকা রাখছে বলে আপনি মনে করেন?
পারুল আক্তার : এজন্য মাননীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অনেক বড় পদক্ষেপ নিয়েছেন। মাননীয় প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী,  বায়রা অবৈধ পাচার বন্ধে কাজ করে যাচ্ছেন। সাংবাদিক ভাইদের ভূমীকাও এ ক্ষেত্রে প্রশংসনীয়। আমি মনেকরি, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনী যদি তার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করে তাহলে দেশে মানবপাচার বন্ধ হয়ে যাবে।সহজ-সরল লোক না বুঝে অবৈধ পথে বিদেশে পাড়ি দেয় : পারুল আক্তার
টাইমওয়াচ : এবার একটু ভিন্ন প্রসঙ্গ। আপনি নারী হয়ে জনশক্তি রপ্তানিতে কাজ করছেন; এতে কোনো রকমের সমস্যা হচ্ছে কী?
পারুল আক্তার : আমি জনশক্তি রপ্তানিতে কাজ করতে পেরে নিজেকে অনেক গর্বিত মনে করছি। এই ব্যবসা করে আমি জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখছি এবং দেশে বেকারত্বের হার হ্রাস করতে ভূমীকা পালন করে যাচ্ছি। রিক্রুটিং লাইসেন্সের মালিকদের দ্বারা দেশের অগণিত পরিবার আজ সচ্ছলভাবে জীবনযাপন করছে। এ ব্যবসা করতে আমার কোনো সমস্যা হয়নি। আমি খুব স্বচ্ছভাবে কাজ করে যাচ্ছি। ইনশাআল্লাহ আমি সবার সহযোগিতা পাচ্ছি।
টাইমওয়াচ : একজন নারী উদ্যোক্তা হিসেবে আজকের এ পর্যায়ে আসার ক্ষেত্রে আপনার কোনো অনুপ্রেরণা আছে কী?
পারুল আক্তার : অবশ্যই অনুপ্রেরণা আছে। আমি যখন যে কাজে হাত দিয়েছি সেখানে আমি আমার পরিবারের সর্বাত্মক সহযোগিতা পেয়েছি। জননেত্রী শেখ হাসিনা সবসময় নারীদেরকে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে বলছেন। আমি বায়রার  প্রথম নির্বাচিত মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট হয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি অনেক খুশি হয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এবং আশির্বাদ করে বলেছেন, দেশের জনশক্তি রপ্তানি খাতের এই নেতৃস্থানীয় পর্যায়ে থেকে একজন নারী হয়ে যাতে আরো বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করে যেতে পারি।
টাইমওয়াচ : ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনার ক্ষেত্রে আপনার আদর্শিক জায়গার কথাটা বলবেন কি?
পারুল আক্তার : সর্ব প্রথম আমি মহান সৃষ্টিকর্তাকে আমার বুকে লালন করি। তারপরই নবী করিম (সা.) সৎ এবং স্বচ্ছভাবে ব্যবসা করতে বলেছেন; আমি তার আদর্শ অনুসরণ করি। মহান আল্লাহ এবং আমার প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদকে (স.) সর্বদা স্বরণে রেখেই আমি আমার ব্যবসা-বাণিজ্যের সামগ্রিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
সাক্ষাৎকার পাতার আরো খবর

Developed by orangebd