ঢাকা : মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পণ্য মজুদ আছে, রমজানে পণ্যের দাম বাড়বে না : বাণিজ্যমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় সরকার          অর্থনৈতিক উন্নয়নে সব ব্যবস্থা নিয়েছি : প্রধানমন্ত্রী          বনাঞ্চলের গাছ কাটার ওপর ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা          দেশের সব ইউনিয়নে হাইস্পিড ইন্টারনেট থাকবে
printer
প্রকাশ : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৩:২২:১৮
চটের ব্যাগ ব্যবহারে সরকারি নির্দেশনা ম্লান : বাড়ছে পরিবেশ দূষণ
এম এ রহিম, বেনাপোল


 


যশোরের শার্শা বেনাপোলে ছয়টি মোড়কে প্লাষ্টিক ব্যাগ বর্জনে সরকারি নির্দেশনা কাজে আসেনি। উপজেলা জুড়ে চটের ব্যাগ ব্যাবহারে কোখাও কোন সাড়া নেই। সমগ্র এলাকায় চলছে প্লাষ্টিকের ব্যার্গে ছড়াছড়ি। ধান ও চালের চাতাল,আড়ৎ মদি দোকান,বস্তার দোকান,সহ বিভিন্ন ব্যাবসা প্রতিষ্টানে দেদারছে চলছে পলিথিন ও প্লাষ্টিকের ব্যাগ। দিন দিন বাড়ছে পরিবেশ দূষন। এক শ্রেনীর অসাধু বস্তা ব্যাবসায়িরা খোড়া অযুহাতে প্রশাসনের নাকের ডোগার উপর বিকিকিন করছেন প্লাষ্টিকের ব্যাগ ও পলিথিন। ভুসি মাল,ধান চাল,আলু আদা মরিচ, খৈল, মৎস্য খাদ্যে প্লাষ্টিকের বস্তা ব্যাবহার হচ্ছে খেয়াল খুশিমতো। লেবেল ছাড়ায় সীমান্ত পথে আসা পলিথিনে ছেয়ে গেছে সমগ্র শার্শা বেনাপোলের বাজার গুলো। এ ছাড়াও ইউরিয়া পটাশ ও মাটিসার সহ সব রকম সারের বস্তা প্লাষ্টিকের ব্যাগ ব্যাবহার হচ্ছে। প্লাষ্টিকের মোড়কে আসছে ভারত থেকে আমদানিকৃত পন্য। চটের ব্যাগের সাথে প্লাষ্টিকের ব্যাগ ব্যাবহার করছে ধান চালের ব্যাবসার সাথে জড়িত অধিকাংশ ব্যাবসায়িরা। বৈধ ভাবে আসা ভারতীয় পন্যে প্লাষ্টিক ব্যাগ পরিবেশের ক্ষতি করবে বলে জানান পরিবেশ সুরক্ষায় নিবেদিত শাহাজাহান আলী। তিনি বলেন দেশের মানুষের মধ্যে পরিবেশ ও সামাজের ভারসম্য রক্ষা বিষয়ে সচেতন না করতে পারলে প্লাষ্টিকের ব্যাগ ব্যাবহার কমবে না।
পরিবেশবান্ধব চটের ব্যাগ ব্যাবহার বাড়লে ভারসম্য রক্ষা হবে। বাড়বে পাটের ব্যাবহার। উপকৃত হবে কুষক সরকারের আসবে অতিরিক্ত অর্থ। দেশে পাটের তৈরী চটের ব্যাগ ব্যাবহার বৃদ্ধিতে প্রশাসন সহ গণ সচেতনতা বাড়ানো প্রয়োজন বলে জানান নাভারন ফজিলাতুন নেছার মহিলা কলেজের প্রভাষক আসাদুজ্জামান আসাদ।
শার্শা উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা আব্দুস সালাম জানান, পাটের চট ব্যাগ ব্যাবহার বৃদ্ধি ও প্লাষ্টিকের ব্যাগ ব্যাবহার বন্ধের নিদের্শনা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন। ইতি মধ্যে বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা সহ প্লাষ্টিকের ব্যাগ ব্যাবহারে কয়েকটি প্রতিষ্টানের কাছ থেকে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। চটের ব্যাগ ব্যাবহারের জন্য বাড়ানো হচ্ছে গন সচেতনতা। তবে আগের থেকে চটের ব্যাগ ব্যাবহার অনেক বেড়েছে।তিনি আরো বলেন কোথাও প্লাষ্টিকের ব্যাগ ব্যাবহারের সন্ধান পেলে অভিযান চালানো হবে। সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।
বেনাপোলের মিতা ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন,চটের ব্যাগে কোন সারের বস্তা পাওয়া যাচ্ছেনা। বাফা গোডাউন থেকে প্লাষ্টিকের বস্তায় আসছে সার সেভাবেই বক্রি করছেন তারা।
নাভারন ও বাগআচড়া বাজারের চটের ব্যাগের সাথে প্লাষ্টিকের ব্যাগ বিক্রি ও মহাউৎসব চলছে। বস্তার দোকানে সাজিয়ে রাখা হয়েছে শত শত চট ও প্লাষ্টিকের বস্তা।  
এ বিষয়ে নাভারন বাজারের মামা ভাগনে এন্টার প্রাইজ, বস্তা বিক্রেতা রবিউল ইসলাম ও ইউছুপ আলী বলেন,আগে আসতো প্লাষ্টিকের বস্তা। তারা সরকারি চটের বস্তার ডিলার প্রতিদিন ৭শ থেকে এক হাজার বস্তা বিক্রি তাদের। চাহিদার তুলনায় চটের ব্যাগ সরবরাহ কম থাকায় প্লাষ্টিকের ব্যাগ কম বেশী চলছে বলে জানান তারা।
 ধান চাল আড়ৎ ব্যাবসায়ি নুর ট্রেডার্সের পরিচালক শার্শা বুরুজবাগার গ্রামের কুরবান আলী বলেন,আগে ব্যাবহার করতাম প্লাষ্টিক ব্যাগ। এখন চটের ব্যাগ ব্যাবহার করছি। পরিবেশের ক্ষতি হোক চান না তিনি। তাই করছেন চটের ব্যাগ ব্যাবহার।
কলেজপড়ুয়া শিক্ষার্থী আশিকুর রহমান আশিক,বলেন,বাজারে এখনও কমবেশী পলিথিন ও প্লাষ্টিকের ব্যগ ব্যাবহার হচ্ছে। তবে চটের ব্যাগ ব্যাবহার বাড়ছে। পরিবেশের ভারসম্য রক্ষায় প্লাষ্টিকের ব্যাগ বর্জন করা প্রয়োজন। এ বিষয়ে গন সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করছেন তারা।
চটের ব্যাগ ব্যাবহার বৃদ্ধি হোক,বর্জন হোন পলিথিন, প্লাষ্টিক ব্যাগ ব্যাবহার রক্ষা পাক পরিবেশ। গড়ে উঠুক পলিথিন মুক্ত সমাজ দাবী শার্শা বেনাপোলের সচেতন মানুষের।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
বিশেষ প্রতিবেদন পাতার আরো খবর

Developed by orangebd