ঢাকা : শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর          ডিএসসিসির ৩,৬৩১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা          রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর          সংলাপের জন্য ভারতকে ৫ শর্ত দিল পাকিস্তান          এরশাদের শূন্য আসনে ভোট ৫ অক্টোবর          বাংলাদেশে আইএস বলে কিছু নেই : হাছান মাহমুদ
printer
প্রকাশ : ১৪ মার্চ, ২০১৬ ১৫:০০:৪৯
টি-২০ বিশ্বকাপের সুপার টেনের লড়াই কাল
টাইমওয়াচ ডেস্ক


 

আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে টুয়েন্টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সুপার টেনের লড়াই। সুপার টেনে গ্রুপ-২ থেকে প্রথম দিন মুখোমুখি হচ্ছে গত আসরের রানার্স-আপ ভারত ও নিউজিল্যান্ড। দুই দলেরই লক্ষ্য জয় দিয়ে শুরু করা। নাগপুরের ভিসিএ স্টেডিয়ামে খেলাটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত আটটায়।
আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে টি-২০ বিশ্বকাপের ষষ্ঠ আসরে যাত্রা শুরু করছে ভারত। তিনটি কারণে ভারতের আত্মবিশ্বাস ভরপুর। কারণ সদ্য এশিয়া কাপ টি-২০ টুর্নামেন্টে শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পড়েছে টিম ইন্ডিয়া। সেই সাথে বর্তমানে টি-২০ র‌্যাংকিং-এ শীর্ষেও রয়েছে ভারত। সাথে এবারের আসরে স্বাগতিকের তকমাটা গায়ে রয়েছে ধোনির দলের। তাই শিরোপার দিকে চোখ রেখেই ষষ্ঠ বিশ্বকাপ শুরু করতে যাচ্ছে প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন ভারত।
শিরোপার জয়ের মিশনের অনুশীলনটা ভালোই হয়েছে ভারতের। প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে নিজেদের ভালোভাবে ঝালিয়েছে ধোনিরা। দু’টির মধ্যে ১টিতে জয় পায়। আর অন্যটিতে হারের স্বাদ নেয় টিম ইন্ডিয়া। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৪৫ রানের জয় পায় ভারত। আর দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে মাত্র ৪ রানে হারে তারা।
প্রোটিয়াসদের সাথে ম্যাচটিতে নিজেদের ভালোভাবে ঝালিয়ে নিতে সক্ষম হয় ভারত। বোলিং-ব্যাটিং দু’বিভাগে দলকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে কাজ করিয়েছেন ধোনি। আর তাই এমন অনুশীলনের পুঁজি নিয়েই প্রথম ম্যাচে শুভ সূচনা করতে চান ভারতের মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান সুরেশ রায়না। প্রথম ম্যাচ নিয়ে রায়না বলেন, নিউজিল্যান্ড শক্তিশালী দল। সহজেই জয় পাওয়া সম্ভব হবে না। জিততে হলে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। শুরুটা ভালোভাবে হলে পরের ম্যাচগুলোতে আরও ভালো খেলতে পারবো।
আগের পাঁচ আসরে মধ্যে প্রথম আসরেই সেরার মর্যাদা পেয়েছে ভারত। ২০০৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত ঐ আসরে পাকিস্তানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ধোনির ভারত। এরপরের তিন আসরে নিজেদের হারিয়ে ফেলে তারা। দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নেয় এবারের স্বাগতিকরা। অবশ্য ২০১৪ আসরের ফাইনালে উঠে শিরোপার স্বপ্ন দেখছিলো ভারত। কিন্তু বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ঐ আসরের ফাইনালে শ্রীলংকার কাছে হার মেনে শিরোপা হাত ছাড়া করে টিম ইন্ডিয়া। এবার নিজেদের মাঠে খেলার সুবিধা কাজে লাগিয়ে দ্বিতীয় শিরাপার স্বাদ নিতে মুখিয়ে থাকবে ভারত।
সুপার টেনে খেলতে নামার আগে দু’টি অনুশীলন ম্যাচ খেলেছে নিউজিল্যান্ডও। ভারতের মতোই ১টিতে জয় ও অন্যটিতে হারের স্বাদ পেয়েছে কিউইরা। শ্রীলংকাকে ৪৭ রানে হারালেও, ইংল্যান্ডের কাছে ৬ উইকেটে হেরে বসে তারা। তবে ভারতের মাটিতে তাদের বিপক্ষে ভালো খেলতে হলে এসব অনুশীলনের ফল কোন কাজে আসবে না বলে মনে করেন নিউজিল্যান্ডের অলরাউন্ডার কোরি এন্ডারসন, ‘আমরা অনুশীলন ম্যাচে করা ভুলগুলো শুধরানোর চেষ্টা করছি। ভারতের মত বড় দলের বিপক্ষে জিততে হলে নিজেদের সেরা ক্রিকেটই খেলতে হবে আমাদের। ভালো খেলার সামর্থ্য আমাদের রয়েছে। সেটি প্রথম ম্যাচেই দেখাতে হবে।’
চলতি বছর দু’টি টি-২০ সিরিজ খেলেছে নিউজিল্যান্ড। দেশের মাটিতে শ্রীলংকা ও পাকিস্তানের বিপক্ষে দু’টি সিরিজই দাপটের সাথে জিতে ব্ল্যাক-ক্যাপসরা। ঐ দু’টি সিরিজও ভালো খেলতে সাহস যোগাবে তাদের। তবে এটিও মনে রাখতে হবে- ঐ দু’টি সিরিজ তারা খেলেছে দেশের মাটিতে। আর এবারের টি-২০ বিশ্বকাপ হচ্ছে ভারতের মাটিতে। তাই দু’টি কন্ডিশন একেবারেই ভিন্ন।
অবশ্য বিশ্বকাপ আসরে পারফরমেন্স খুব বেশি সুখকর নয় নিউজিল্যান্ডের। এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ চতুর্থ হতে পেরেছে তারা। তাও ২০০৭ সালে প্রথম আসরে। পরের চার আসরে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয় ওয়ানডে বিশ্বকাপের রানার্স-আপরা। তাই টি-২০ বিশ্বকাপে ভালো খেলতে না পারার বন্ধ্যাত্বটা এবারই ঘোচাতে চাইবে কেন উইলিয়ামসনের দল।
ভারত ও নিউজিল্যান্ডের গ্রুপে আরও আছে পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া। প্রথম রাউন্ডের ‘এ’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ।
আর সুপার টেনের গ্রুপ-১এ আছে ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলংকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাছাই পর্ব থেকে উন্নীত আফগানিস্তান (প্রথম রাউন্ডের ‘বি’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আফগানিস্তান)।
টুয়েন্টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপের রোল অব অনার :
বছর স্বাগতিক চ্যাম্পিয়ন রানার্স-আপ
২০০৭ দক্ষিণ আফ্রিকা ভারত পাকিস্তান
২০০৯ ইংল্যান্ড পাকিস্তান শ্রীলংকা
২০১০ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইংল্যান্ড অস্ট্রেলিয়া
২০১২ শ্রীলংকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ শ্রীলংকা
২০১৪ বাংলাদেশ শ্রীলংকা ভারত

printer
সর্বশেষ সংবাদ
খেলাধূলা পাতার আরো খবর

Developed by orangebd