ঢাকা : শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর          ডিএসসিসির ৩,৬৩১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা          রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর          সংলাপের জন্য ভারতকে ৫ শর্ত দিল পাকিস্তান          এরশাদের শূন্য আসনে ভোট ৫ অক্টোবর          বাংলাদেশে আইএস বলে কিছু নেই : হাছান মাহমুদ
printer
প্রকাশ : ০৭ মার্চ, ২০১৭ ১৫:৪৫:৪০
নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে, বিএনপিও নির্বাচনে অংশ নেবে
নওগাঁ সংবাদদাতা


 


সড়ক ও সেতুমন্ত্রী বাংলাদেশ আ'লীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন সম্পূর্ণভাবে নিরপেক্ষ। এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে আগামী নির্বাচন নিরপেক্ষ এবং সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে। বিএনপি যতই নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করুক শেষ পর্যন্ত তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেই। কারন এই নির্বাচনে অংশগ্রহন না করলে বিএনপি’র কোন অস্থিত্ব থাকবেনা।জনপ্রিয়তা হারিয়ে যখন ভোটে জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা নেই তখন কেবলমাত্র নির্বাচনে না যাওয়ার জন্য বরাবর টালবাহানা করে থাকেই। এটি বিএনপি’র স্বভাব সুলভ আচরন।
তিনি সোমবার দুপুরে বাংলাদেশ আ'লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক প্রয়াত নেতা আব্দুল জলিলের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরন সভায় এই কথাগুলো বলেছেন। স্থানীয় নওযোয়ান মাঠে নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত এ স্মরনসভায় সভাপত্বি করেন জেলা আ'লীগের সভাপতি মোঃ আব্দুল মালেক এমপি।
স্মরনসভায় বাংলাদেশ আ'লীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন, জাতীয় সংসদের হুইপ মোঃ শহিদুজ্জামান সরকার এমপি, জেলা আ'লীগের সাধারন সম্পাদক সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি, মোঃ ইসরাফিল আলম এমপি, সলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম এমপি, নওগাঁ জেলা আ'লীগের সহ-সভাপতি এ কিউ এম ওয়াহিদুজ্জামান খান বাদশাহ, কাজী রেজাউল ইসলাম, নির্মলকৃষ্ণ সাহা, মহিলা আ'লীগের সভাপতি শাহনাজ বেগম, সদর উপজেলা আ'লীগের  সভাপতি মাহবুবুল হক কমল, আত্রাই উপজেলা আ'লীগের সভাপতি নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলাল, নিয়ামতপুর উপজেলা আ'লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এনামুল হক, নওগাঁ পৌর আ'লীগের সভাপতি দেওয়ান ছেকার আহম্মেদ শিষান, জেলা যুবলীগের আহবায়ক এ্যাড. খোদাদাদ খান পিটু, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাড. ওমর ফারুখ সুমন এবং ছাত্রলীগের সাধারন নসম্পাদক বিমান কুমার রায় বক্তব্য রাখেন।
নির্বাচন কমিশন নিয়ে বিএনপি’র সমালোচনার প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন মাননীয় রাষ্ট্রপতি সকল রাজনৈতিক দলের সাথে দীর্ঘ আলোচনার পর সার্চ কমিটি কর্ত্তৃক দাখিলকৃত তালিকা থেকে বিএনপি এবং আ'লীগের মনোনীত ব্যক্তিদের নিয়ে বর্তমান নির্বাচন কমিশন গঠিত হয়েছে-তারপরও বিএনপি’র বিষোদগার। নির্বাচন কমিশন মানিনা মানবোন।  এক্ষেত্রে তিনি বিএনপি’কে বাংলাদেশ নালিশ পার্টি বলে উল্লেখ করেন।
মন্ত্রী প্রয়াত নেতা আব্দুল জলিলের স্মৃতিচারন করে বলেন তিনি ছিলেন অত্যন্ত সাংগঠনিক, মানবদরদী এবং বিনয়ী। তাঁকে নওগাঁর মানুষ যে কত ভালো বাসেন এই স্মরনসভায় হাজার হাজার নারী পুরুষের  ঢল দেখে তাই প্রমান করে। তা নাহলে এই প্রখর রোদের মধ্যে দুঃসহ গরম সহ্য করে এত মানুষ মাঠে বসে থাকতে পারতোনা। মৃত্যুর পরও মানুষ তাঁকে হৃদয়ের মাঝখানে রেখেছেন।
আব্দুল জলিলের আদর্শ অনুসরন করার পরামর্শ দিয়ে তিনি নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন অন্যের জমি দখল করে, মানুষের সাথে খারাপ ব্যবহার করে মানুষের ভালোবাসা পাওয়া যায় না। তৃনমুল কর্মীদের মতামত উপেক্ষা করে নেতাকমর্েিদর ইচ্ছামত পকেট কমিটি কমিটি গঠন করতে দেয়ার হবেনা। দল যখন ক্ষমতায় থাকে তখন কিছু মওসুমী পাখি ঝাঁকে ঝাঁকে আসে। বসন্তের এসব কোকিলদের চাপে কর্মীরা কোনঠাসা হয়ে পড়ে। ক্ষমতা চলে গেলে হাজার পাওয়ারের বাদি জ্বালিয়েও এসব মওসুমী পাখির খোঁজ পাওয়া যায় না।  নেতাদের এরকম সিন্ডিকেট করতে দেয়া যাবেনা। আ'লীগ একটি গনতান্ত্রিক দল। সবকিছুই হবে তৃনমুলের নেতাকর্মীদের মতামতের ভিত্তিতে।
তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিগত ৮ বছরে যে উন্নয়ন হয়েছে তাতে বিশ্বে বাংলাদেশ অনেকদুর এগিয়ে গেছে। সেইসাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের ১০ জন নেতার মধ্যে নিজেকে একজন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছে। তাই আগামী নির্বাচনে ভোটের কোন ঘাটতি হবে না।
মন্ত্রী বলেন নওগাঁ জেলায় ৪২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে সান্তাহার হতে নওগাঁ-নওহাটার মোড়- রাজশাহী বিমানবন্দর পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ন আঞ্চলিক মহা-সড়কের উন্নয়ন কার্যক্রম এবং ২০৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নওগাঁ-আত্রাই-নাটোর মহা-সড়কের অসমাপ্ত কাজ শীঘ্রই শুরু হচ্ছে। ইতিমধ্যে এই দু’টি প্রকল্প প্রি-একনেকে অনুমোদন লাভ করেছে।  
এই স্মরনসভায় পার্শ্ববর্তী রাজশাহী, চাপাইনবাবগঞ্জ, জয়পুরহাট, নাটোর এবং বগুড়া জেলা থেকে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহন করেন। এদিন সকাল থেকেই জেলার ১১টি উপজেলা থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মীর কেন্দ্রবিন্দুতে পরিনত হয় স্মরনসভার স্থল নওগাঁ নওযোয়ান মাঠ। সভার নির্দিষ্ট সময় বেলা ১১টার মধ্যে মাঠে আর কোন তিল ধারনের ঠাঁই ছিলনা।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
রাজনীতি পাতার আরো খবর

Developed by orangebd