ঢাকা : বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

সংবাদ শিরোনাম :

  • ‘এসডিজি প্রোগ্রেস অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা          করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১৫৬২ জন          বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, নদীবন্দরসমূহকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত          জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মেডেল পেলেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ১১০ সদস্য          অষ্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশের মধ্যে টিফা চুক্তি স্বাক্ষর          অনিবন্ধিত সব অনলাইন বন্ধ করে দেওয়া সমীচীন হবে না : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী
printer
প্রকাশ : ০৭ মে, ২০১৭ ১৮:৩১:০৭আপডেট : ০৭ মে, ২০১৭ ১৮:৩১:৪৬
তিস্তার ভাঙ্গনে বসতবাড়ী ও আবাদী জমি নদীগর্ভে বিলীন
তোফায়েল হোসেন জাকির, গাইবান্ধা


 


গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের উপর দিয়ে প্রবাহিত উজান থেকে নেমে আসা ঢলে তিস্তার নদীর তীব্র ভাঙ্গণ দেখা দিয়েছে। এর ফলে বসতবাড়ি ও উঠতি ফসলসহ শতাধিক একর আবাদি জমি নদী গর্ভে বিলিন হয়েছে।  
সুন্দরগঞ্জ উপজেলার হরিপুর, চন্ডিপুর, কাপাসিয়া ও বেলকা ইউনিয়নে তীব্র ভাঙ্গণ দেখা দিয়েছে। চন্ডিপুর ইউনিয়নের উজান বোচাগাড়ী, ভাটি বোচাগাড়ী, উজান বুড়াইল, হরিপুর খেয়াঘাট, কাপাসিয়া ইউনিয়নের কেরানিরচর, ফকিরের চর, কালাই সোতার চর এলাকায় ভাঙ্গণের তীব্রতা দিন-দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।
গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে হরিপুর ইউনিয়নে ৫০টি পরিবারসহ শতাধিক একর আবাদি জমির উঠতি ফসল তোষাপাটসহ নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। বসতবাড়ি ও গাছপালা হারিয়ে নদী গর্ভে বিলিন হয়ে যাওয়া পরিবারগুলো খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছে।  চন্ডিপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান রাশিদুল ইসলাম জানান- বৈশাখের শুরু থেকে অবিরাম বর্ষণ এবং উজান থেকে নেমে আসা ঢলে তিস্তার ভাঙ্গণ দেখা দিয়েছে। পানি কম হওয়ায় ¯্রােতের বেগ বেড়ে যাওয়ায় এই ভাঙ্গণ দেখা দিয়েছে। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে আমার ইউনিয়নে ৫০ একর জমিসহ দশটি পরিবার নদী গর্ভে বিলিন হয়েছে।
এব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) নুুরুন্নবী সরকার জানান  এবিষয়ে জরুরী ভিত্তিতে প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
প্রকৃতি-পরিবেশ পাতার আরো খবর

Developed by orangebd