ঢাকা : শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • সরকার নদীখননের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে : নৌ-পরিবহনমন্ত্রী          দক্ষতা-জ্ঞান-প্রযুক্তির মাধ্যমেই সক্ষমতা অর্জন সম্ভব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী           বাংলাদেশে এ বছর রেকর্ড পরিমাণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে          জাতীয় নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়নি : সিইসি          আ.লীগ সরকার ছাড়া কোনো দলই এত পুরস্কার পায়নি : প্রধানমন্ত্রী          মোবাইল ব্যাংকিং সেবার চার্জ কমে আসবে : অর্থমন্ত্রী          রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে সু চিকে জাতিসংঘের অনুরোধ
printer
প্রকাশ : ০৯ জুলাই, ২০১৭ ১৩:৩৭:১৫আপডেট : ০৯ জুলাই, ২০১৭ ১৩:৪১:৩১
ইমনের ডাক্তার হওয়ার স্বপ্নে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে ক্যান্সার
এম বেলাল উদ্দিন, রাউজান (চট্টগ্রাম)


 


জীবনে স্বর্ণালি দিনগুলো শীতের পাতার মতো ঝড়ে যায়। তবুও এ জীবনকে সাজাতে সবার কতই না আয়োজন। সাজানো খেলাঘর ভেঙে চুরমার করে নেমে আসে মরণ। জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে তেমনি সময় পার করছেন রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের মো. ইউনূচের পুত্র মিনহাজ উদ্দিন ইমন (১৬)। সে রাউজান উপজেলার হলদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র। তাঁর স্বপ্ন ছিল ডাক্তার হয়ে এলাকার হতদরিদ্র লোকজনকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করবে। এ লক্ষ্যে পড়াশোনাসহ সবকিছু ঠিকঠাকভাবে চলছিল। কিন্তু গত দুই সপ্তাহ আগে তাঁর শরীরে ধরা পড়ে ব্লাড ক্যান্সার। মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান হয়েও বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে নিজের অধম্য ইচ্ছশক্তি নিয়ে এগিয়ে যাওয়া ইমনের ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন বাস্তবায়েেন বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে মরণব্যাধি ক্যান্সার। বর্তমানে সে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে বিদেশে নিয়ে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন চমেক’র চিকিৎসক। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মতে, পূর্ণাঙ্গ সুস্থ্যতার জন্য নিয়মিত চিকিৎসা ও পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে ইমনকে। ইমন যে স্বপ্ন নিয়ে বিজ্ঞান বিষয়ে পড়াশোনা করছে, সে স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে নিয়মিত অধ্যায়নে নিজেকে ব্যস্ত রাখার কথা ছিল। কিন্তু ইমনকে অধ্যায়নের পরিবর্তে মরণব্যাধি ক্যান্সারের সাথে লড়াই করতে হচ্ছে। মিনহাজের শরীরে মরণব্যাধি ক্যান্সার ধরা পড়েছে এমন খবরে আত্মীয়-স্বজন, প্রতিবেশী, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও সহপাঠিরা দুঃচিন্তায় ভেঙে পড়েছেন। ইমনের জন্য তাঁর পরিবার দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। যাতে সে সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসে তার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন বাস্তাবায়ন করতে পারে এবং এলাকার হতদরিদ্র লোকজনকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে পারে। মিনহাজের ক্যান্সার আক্রান্ত খবরে রাউজানের সাংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী নিজে উদ্যোগী হয়ে ডাক্তারদের সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ করে চলেছেন। পাশাপাশি সব ধরনের সহযোগিতা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইমনের শিক্ষক মাওলানা ইদ্রিস আনছারী ছেলেটির জন্য দেশবাসীর নিকট দোয়া চেয়েছেন। স্থানীয় সমাজ সেবক মাওলানা দিদার কাদেরী ফেসবুকের মাধ্যমে সকলকে উদ্বুধ্ব করছেন দৈনিক একব্যাগ এপ্লাস রক্ত দিয়ে ইমনের জীবন যেন রক্ষা করেন।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
শিক্ষা পাতার আরো খবর

Developed by orangebd