ঢাকা : মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • গণতন্ত্র এখন সুরক্ষিত : প্রধানমন্ত্রী          ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার বাজেট পেশ          নারীবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সকলকে সহযোগিতার আহবান স্পিকারের          প্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী          তিন হাজার বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হবে
printer
প্রকাশ : ১৩ জুলাই, ২০১৭ ১৬:১৮:০৭
তারেকের শাশুড়ির দুর্নীতির মামলা বাতিল
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের শাশুড়ি সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানুর বিরুদ্ধে সম্পদের হিসাব না দেওয়ার অভিযোগে দুদকের করা মামলা বাতিল করে দিয়েছেন আপিল বিভাগ।
 
একই সঙ্গে সম্পদের হিসাব চেয়ে সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানুকে নতুন করে নোটিশ দিতে দুর্নীতি দমন কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
 
হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে ইকবাল মান্দ বানুর লিভ টু আপিল মামলা ১৩ জুলাই বৃহস্পতিবার নিষ্পত্তি করে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এই আদেশ দেন।
 
আদালতে তারেকের শাশুড়ির পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার রাগিব রউফ চৌধুরী ও আইনজীবী জাকির হোসেন ভূইয়া। দুদকের পক্ষে আইনজীবী খুরশিদ আলম খান ও রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম শুনানি করেন।
 
এর আগে গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানুর বিরুদ্ধে সম্পদের হিসাব না দেওয়ার মামলা বাতিল চেয়ে করা রিট আবেদন খারিজ করেন হাইকোর্ট। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আমির হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।
 
পরে হাইকোর্টের এই খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে একই বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি লিভ টু আপিল করেন ইকবাল মান্দ বানু। সেই লিভ টু আপিল নিষ্পত্তি করে আদালত বৃহস্পতিবার উপরোক্ত আদেশ দেন।
 
সম্পদের হিসাব জমা দেওয়ার জন্য ২০১২ সালের ২৫ জানুয়ারি ইকবাল মান্দ বানুকে নোটিশ দিয়েছিল দুদক। এরপর হাইকোর্টে রিট আবেদন করে স্থগিতাদেশ পান ইকবাল মান্দ বানু। এর বিরুদ্ধে দুদক আপিল করলে হাইকোর্টের ওই আদেশ স্থগিত হয়ে যায়। এরপর ২০১৪ সালের ৩০ জানুয়ারি দুদকের উপপরিচালক আর কে মজুমদার ঢাকার রমনা থানায় ইকবাল মান্দ বানুর বিরুদ্ধে এ মামলা করেন। সম্পদ বিবরণী জমা দেওয়ার নোটিশ জারির পর নির্দিষ্ট সময়ে কমিশনে হিসাব না দেওয়ায় এ মামলা করা হয়।
 
এই মামলার তদন্ত শেষে ১৪ জানুয়ারি অভিযোগপত্র দাখিলের অনুমোদন দেয় দুদক। অনুমোদনের পর ১৯ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দেয় দুদক।
 
দুদকের উপপরিচালক আবদুস সাত্তার সরকার এ অভিযোগপত্র ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম শামসুল আরেফিনের আদালতে জমা দেন।
 
বর্তমানে এই মামলা ঢাকার বিশেষ জজ আদালতে বিচারাধীন। আইনজীবীরা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবারের আদেশের ফলে এই মামলার কার্যক্রম আর চলবে না।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
রাজনীতি পাতার আরো খবর

Developed by orangebd