ঢাকা : রোববার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • মেক্সিকোতে ভূমিকম্প : নিহত ২৪৮          রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতীয় ঐক্য হয়ে গেছে, নতুন ঐক্যের দরকার নেই : নাসিম          ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল মধ্যম আয়ের দেশ হবে বাংলাদেশ : বাণিজ্যমন্ত্রী          রোহিঙ্গাদের ব্যাপার ঐক্যবদ্ধ হতে ওআইসি’র প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান          দু-এক দিনের মধ্যে চালের দাম কমবে : বাণিজ্যমন্ত্রী          রোহিঙ্গাদের প্রতি আন্তরিকতার কমতি নেই : ওবায়দুল কাদের          রোহিঙ্গারা ক্যাম্প ত্যাগ করলে অবৈধ বলে গণ্য হবেন : আইজিপি          রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ নৈতিক সাফল্য অর্জন করেছে : রুশনারা আলী
printer
প্রকাশ : ২৮ আগস্ট, ২০১৭ ১৭:০৪:২৯
আইশার ট্রাক ও বাস এখন বাংলাদেশে সংযোজিত হচ্ছে
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


ভারতের অন্যতম বৃহৎ বাণিজ্যিক যানবাহন প্রস্তুতকারী ‘ভি ই কমার্শিয়াল ভেহিকেলস লিমিটেড’ এর একটি ব্যবসায়িক অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ‘আইশার ট্রাকস অ্যান্ড বাসেস’ সম্প্রতি বাংলাদেশে তাদের সি কে ডি যানবাহন সংযোজন কার্যক্রম শুরু করার কথা ঘোষণা করেছে। বাংলাদেশে আইশারের সহযোগী হিসেবে রানার মোটরস লিমিটেড এর সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে এই সংযোজন কারখানাটি স্থাপিত হতে যাচ্ছে। আইশারের ঘোষিত নীতিমালা অনুযায়ী বাংলাদেশের বাণিজ্যিক পরিবহন জগতে আধুনিকতা আনতে তারা এই উদ্যোগ নিয়েছেন।

৩৫ একর জমিতে এ প্ল্যান্টটি স্থাপিত হবে। প্রতি মাসে ৫০০ ইউনিট যানবাহন সংযোজন ক্ষমতা সম্পন্ন এই প্ল্যান্টে নব প্রজন্মের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এসেম্বলি লাইন ও টেস্টিং সুবিধা থাকবে। আগামী বছরে এই প্ল্যান্টের উৎপাদন শুরু হবে।  

গত ১৯৯৩ সাল থেকে আইশার ট্রাক ও বাস বাংলাদেশে চলছে। তবে বিশেষ করে গত কয়েক বছরে রানার মোটরস লিমিটেড এবং র‌্যাংগস মোটরস লিমিটেড এর সহযোগিতায় আইশার বাংলাদেশে উল্লেখযোগ্যভাবে তার ব্যবসা কার্যক্রম প্রসারিত করেছে। ২৫টি আঞ্চলিক অফিস ও সার্ভিস সেন্টারের মাধ্যমে তারা এদেশে ক্রেতাদের জন্য সেলস ও সার্ভিস  এবং বাংলাদেশের মার্কেট শেয়ার বাড়াতে কাজ করে যাচ্ছে। বিশ্ববিখ্যাত ‘ভোলভো’ গ্রুপের আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতা এবং আইশারের পরীক্ষিত উদ্ভাবনী ও সাশ্রয়ী জ্বালানীর প্রযুক্তির সমন্বয় করে ভি ই সি ভি প্রতিনিয়ত তাদের পণ্যের মানোন্নয়ন করছে।  

এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভি ই কমার্শিয়াল ভেহিকেলস লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সি ই ও বলেন, বাংলাদেশ আইশারের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ মার্কেট এবং এই দেশে আমরাই প্রথম বি এস ৩ মানের যানবাহন এনেছি। আমরা ভোলভো গ্রুপের আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতা ও আইশারের উদ্ভাবনী ও সাশ্রয়ী জ্বালানী প্রযুক্তির সমন্বয় ঘটিয়েছি। এ ছাড়াও বাংলাদেশে আমরা ‘ফুয়েল কোচিং’ এবং ‘ক্রুজ কন্ট্রোল’ এর মত আধুনিক প্রযুক্তি চালু করেছি। আমরা গত ৩ বছরে বাংলাদেশে ২৫ টি নতুন মডেল এনেছি, যাতে বহুবিধ ব্যবহারের প্রয়োজন মেটাচ্ছে। বাংলাদেশের অর্থনীতি দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এই নতুন সংযোজন প্ল্যান্টের মাধ্যমে আমরা আমাদের অবস্থান আরও সংহত করতে পারব বলে আশা করি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত রানার মোটরস লিঃ এর চেয়ারম্যান তার বক্তব্যে বলেন, আইশার ট্রাক অ্যান্ড বাস” এর অংশীদার হতে পেরে এবং সি কে ডি সংযোজন প্ল্যান্টের কাজ শুরু করতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমরা আইশার ট্রাক ও বাসের জন্য একটি ট্রেনিং স্কুল প্রতিষ্ঠা করেছি। এর মাধ্যমে আমরা আমাদের টেকনিশিয়ানদেরকে যথাযোগ্য প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ জনবল তৈরি করছি। বাংলাদেশ দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়ন করছে। আমরা আশা করি যে, আইশারের উন্নত জ্বালানী সাশ্রয়ী যানবাহন এর সাহায্যে আমরা আমাদের দেশের বানিজ্যিক যানবাহন সেক্টরে আধুনিকতা আনতে পারব।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন র‌্যাংগস মোটরস লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিস সোহানা রউফ চৌধুরী। তিনি বলেন, আইশারের সঙ্গে আমাদের ব্যবস্যায়িক সম্পর্ক দুই দশকের। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৫ বছরে বাংলাদেশে আইশারের বিক্রয় সংখ্যা প্রায় ৪ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে মিনি বাসের বাজারে আইশার এখন ক্রেতাদের পছন্দের ব্র্যান্ড এবং এই সেক্টরে আমরা বরাবরই মার্কেট লিডার আছি। আমরা বিক্রয় পরবর্তী সেবা আরও নিশ্চিত করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ এবং আমরাই প্রথম ‘ক্রেতার দোরগোড়ায় সার্ভিস’ কার্যক্রম শুরু করি। আমরাও খুব শিগগীর আইশার ট্রাক ও বাসের সংযোজন লাইন স্থাপন করব।

মিঃ বিনোদ আগরওয়াল আরও বলেন, আইশার বাংলাদেশে রানার মোটরস লিমিটেড এবং র‌্যাংগস মোটরস লিমিটেড এর যৌথ উদ্যোগে ‘লাইফ টাইম সাপোর্ট সল্যুশন’ এর অংশ হিসেবে বেশ কয়েকটি পদক্ষেপ নিয়েছে। এইসব পদক্ষেপের ফলে আইশার ব্যবহারকারীদেরকে উদ্ভাবনী পন্থায় সেবা প্রদান, ‘২৪x৭ আইশার অন রোড সার্ভিস’ এবং ‘গ্রাহকের দোর গোড়ায় সেবা’ দিয়ে যানবাহনগুলির সময় সাশ্রয় করা সম্ভব হয়েছে এবং গ্রাহক বাড়তি সুবিধা পাচ্ছেন। নিয়মিত উন্নত প্রশিক্ষন পেয়ে চালকগণ যানবাহনের রক্ষণাবেক্ষণ ও জ্বালানী সাশ্রয়ে দক্ষ হচ্ছেন। বাণিজ্যিক যানবাহন সেক্টরে আধুনিকতা আনার লক্ষ্যে ও পরিবেশ রক্ষার্থে আমরা আমাদের ক্রেতা,  সহযোগীদের সঙ্গে নিয়ে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছি। আইশার ট্রাক ও বাসসমুহ সকল ব্যবহারকারীকে তাদের প্রয়োজন ও স্বার্থের প্রতি সুবিচার করে তাঁদেরকে উন্নত জ্বালানী সাশ্রয়ী যানবাহন এবং তার লাভ সুবিধা নিশ্চিত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

 

উল্লেখ্য, আইশার বাস ও ট্রাক গত তিন দশক যাবত সাফল্যের সঙ্গে ভারতে গাড়ী প্রস্তুত করে আসছে। আইশার বাস ও ট্রাক হালকা ও মাঝারী ক্যাটাগরিতে (৪ থেকে ১৫ টন) তার শক্তিশালী অবস্থান ধরে রেখেছে এবং ভারী ক্যাটাগরিতে (১৬ থেকে ৪৯ টন) ক্রমবর্ধমান হারে মার্কেট শেয়ার দখল করছে। ইতোমধ্যে আইশার তার সম্পূর্ণ উন্নত ও আধুনিক ‘প্র’ সিরিজের ট্রাক ও বাস বাজারজাত করেছে। আইশারের প্র সিরিজের বাস ও ট্রাক সর্বাধিক জ্বালানী সাশ্রয়, অধিক মাল বহন ও গাড়ীর স্থায়িত্বের প্রতিশ্রুতি নিয়ে বাজারে এসেছে।
ভি ই সি বি হল ভোলভো গ্রুপ ও আইশার মোটরস লিমিটেড এর যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত। ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত এই কোম্পানির বহরে আছে আইশার ব্র্যান্ডের সকল বাস ও ট্রাক, ভি ই পাওয়ার ট্রেন, আইশারের যন্ত্রাংশ ব্যবসা এবং ভারতে ভোলভো ট্রাকের পরিবেশনা ব্যবসা। ভি ই সি বি’র লক্ষ্য হচ্ছে আধুনিক প্রযুক্তির বানিজ্যিক যানবাহন প্রস্তুতের ক্ষেত্রে উন্নত বিশ্ব ও ভারতে মার্কেট লিডার হওয়া।
 

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd