ঢাকা : বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • মেক্সিকোতে ভূমিকম্প : নিহত ২৪৮          রোহিঙ্গাদের ব্যাপার ঐক্যবদ্ধ হতে ওআইসি’র প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান          দু-এক দিনের মধ্যে চালের দাম কমবে : বাণিজ্যমন্ত্রী          রোহিঙ্গাদের প্রতি আন্তরিকতার কমতি নেই : ওবায়দুল কাদের          রোহিঙ্গারা ক্যাম্প ত্যাগ করলে অবৈধ বলে গণ্য হবেন : আইজিপি          রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ নৈতিক সাফল্য অর্জন করেছে : রুশনারা আলী
printer
প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৯:৩৩:৩৫
রোহিঙ্গাদের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেজিস্ট্রেশন করা হবে : মায়া চৌধুরী
কক্সবাজার সংবাদদাতা


 

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, মায়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেজিস্ট্রেশন করা হবে। একাজে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) অংশগ্রহণ ও সহযোগিতা থাকবে। শরণার্থীরা মাদক বা অন্য কোন অবৈধ কিছু নিয়ে যাতে প্রবেশ করতে না পারে তার জন্য বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে।
৯ সেপ্টেম্বর কক্সবাজারের নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী এ কথা বলেন।
আইন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সভাপতি আব্দুল মতিন খসরু, আব্দুর রহমান এমপি, আশিকুর রহমান এমপি এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব মোঃ শাহ্ কামাল এসময় উপস্থিত ছিলেন।
মন্ত্রী বলেন, সরকার রোহিঙ্গাদের সাময়িক আশ্রয়দান সম্পূর্ণ মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করছে। এতো বিপুল সংখ্যক বিদেশী নাগরিকের আশ্রয়দান, বাংলাদেশের জন্য কষ্টকর হলেও, এ মানবিক সংকটের সময়ে রোহিঙ্গাদের সাময়িক সময়ের জন্য সীমান্তবর্তী একটি এলাকায় আশ্রয়ের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তাদের জন্য বাংলাদেশের পক্ষে সম্ভব, সকল ধরনের মানবিক সহায়তা নিশ্চিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।
বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশসহ সকলের সাথে সুসম্পর্কে বিশ্বাস করে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আলাপ-আলোচনা ও পারস্পরিক বোঝাপড়ার মাধ্যমে, অতি অল্প সময়ের মধ্যে, এ সংকটের সমাধান সম্ভব বলে আমরা মনে করি। তিনি আশা প্রকাশ করেন, মায়ানমার অতি দ্রুতই তার নাগরিকদের ফিরিয়ে নিবে। তিনি বলেন, বিগত কয়েক বছর ধরে মিয়ানমারের এই রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করছে। পূর্বে আসা এসব নাগরিকরা সম্পূর্ণ অবৈধভাবে কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকায় মানবেতর জীবন যাপন করছে।
মায়া চৌধুরী  বলেন, ২৫ আগস্টের পর থেকে নতুন করে বিপুল সংখ্যক মায়ানমার নাগরিক জীবনের ঝুঁকি নিয়ে, নদী ও সাগর পথে বাংলাদেশে আসছে। ২৫ আগস্টের পর থেকে আজ পর্যন্ত অনানুষ্ঠানিকভাবে তিন লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে, যা অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে এবার তাদের আসার হার অনেক বেশী।
তিনি বলেন, নারী, শিশু ও অসহায় অনুপ্রবেশকারীদের করুণ চিত্র বিশ^বাসীর নজরে এসেছে এবং বাংলাদেশ ও বিশ^বাসী এ নিয়ে বিশেষ উদ্বিগ্ন। অসহায় এই মানুষগুলোর দুঃখ-দুর্দশা মানবিক সংকট তৈরী করেছে। আন্তর্জাতিক সংগঠন ও সম্প্রদাকে এ অসহায় মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন এ লোকগুলোকে ফিরিয়ে নিতে তারা যেন মায়ানমারকে চাপ দেয়।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয় পাতার আরো খবর

Developed by orangebd