ঢাকা : শনিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • অটিজম আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াতে আহবান প্রধানমন্ত্রীর          নারীবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সকলকে সহযোগিতার আহবান স্পিকারের          প্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী          তিন হাজার বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হবে           সালেই বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে : মেনন
printer
প্রকাশ : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২৩:২৩:১৫
চোরাচালান ছেড়ে ইজিবাইক চালিয়ে সুদিন ফিরিয়েছে নারী জাইদা
এম এ রহিম, বেনাপোল


 


দৃঢ়চেতা কর্মঠ ও উদ্যোমী নারী জাইদা। অনেক ঘাত প্রতিঘাত অত্যাচার নির্যাতনে নিষ্পেশিত নারী জাইদা খাতুন চোরাচালানী ও অসমাজিকতা ছেড়ে নরম হাতে ধরলেন ষ্টারিং-ইজিবাইক চালিয়ে চালাচ্ছেন সংসার-সাধুবাদ জানালেন স্থানীয়রা। বেনাপোলে এই প্রথম নারী চালক দেখে হতবাক ও আনন্দিত হয়েছেন অনেকে। নারীদের মধ্যে বাড়ছে আগ্রহ। তার দেখে সমাজে অবহেরিত আরো নারী প্রশিক্ষন নিচ্ছেন ইজিবাইক চালানো। জাইদার ইজিবাইক চালিয়েই সংসার চলছে ভাল।
 
বেনাপোলে একটি বহুল প্রচারিত নাম জাইদা খাতুন। বেনাপোল গাজিপুর গ্রামে একটি ভাড়াবাড়ীতে একা থাকেন তিনি।  ছোট বেলায় হারান মা ও বাবাকে। অল্প বয়েসেই বিবাহ হয় তার। ৪বছরের ব্যাবধানে তার কোলজুড়ে আসে একটি ছেলে ও মেয়ে। ৫বছর পর মারা যায় স্বামী। জড়িয়ে পড়েন চোরাচালানীতে। তার জীবনে নেমে আসে কালো অধ্যায়। নিয়াতিত নিষ্পেশিত হন তিনি। এসময় এক বিজিবি সদস্যের সাথে বিবাহ হয় চাকুরী যায় তার। জাইদা তার সারা জীবনের সহয় সম্বল বিক্রি করে স্বামীকে পাঠান বিদেশে। ৯বছর পর দেশে ফিরে তালাক দেয় তাকে। জীবন জীবিকার তাগিদে পরিজন ছেড়ে মান সন্মান হারিয়ে জড়িয়ে পড়েন চোরাচালানী সহ অসমাজিকতায়। পাসপোর্ট করে শুরু করে ব্যাবসা। কিন্তু তার চোরাচালানী হিসাবে জানে প্রশাসনের সদস্যরা। এক ঈদে পরিবারের সদস্যদের জন্য পোষাক কিনে বেনাপোলে এসে বিজিবির হাতে আটক হয়। ৭০% বস্ত্র সিজার করে নামে মাত্র কিছুৃ বস্ত্র দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয় তাকে। সীমান্তে বিজিবির ধড় পাকড়ে সর্বশান্ত হয় সে। মনের দু:খে ক্ষোভে অভিমানে শুরু করে নতুন কর্মজীবন। ঋন নিয়ে একটি ইজি বাইক কিনে যশোর-বেনাপোল সড়কে বাইক চালিয়ে ধরছেন সংসারের হাল। স্থানীয়রা সাধুবাদ জানিয়েছেন সবাই সহযোগিতা করছে তার। এতেই খুশি জাইদা। আর ফিরতে চান না চোরাচালানীতে। সমাজে সংসারে সন্মান নিয়ে মানুষের মতো মানুষ হয়ে বাচার করুন আকুতি তারা। অশ্রুসিক্ত নয়নে জাইদা বলেন,এখন ভালই আছি মানুষ সমাদর করছেন তাকে। মানুষের এমন ভালবাসা ও সহযোগিতা নিয়ে বেচে থাকতে চান তিনি। এখন থেকে পাচ ওয়াক্ত নামাজ পড়া সগ হজ্ব করার ইচ্ছা ব্যাক্ত করেন জাইদা।  
ইজি বাইক চালক: জাইদা খাতুন আরো বলেন,ঘরে থাকতে সব নারীর মন চাই-সবাই চাই স্বামী সংসারে সুখে থাকতে।  কয় জনের ভাগ্যে জোটে সুখ নামের সোনার হরিন। অবশেষে মান সন্মান নিয়ে বেচে থাকতে ধরেছেন ষ্টারিং এতে এখন ভাল আছেন তিনি। মানুষের মাঝেই সুখ শান্তি ও আশা আকাংখা। সরকার সহ মানবধিকার সংগঠনগুলোর সৃ দৃষ্টি কামনা করেন তিনি।
মো: মাহে আলম ও আরমান হোাসেন বলেন,বেনাপোলে এই প্রথম কোন নারী চালাচ্ছেন ইজি বাইক-সৎপথে করছেন উপার্যন-সহযোগিতা করছেন তারা। অনেক নারী যাত্রীই তার বাইকে চড়ে স্বচ্ছন্দবোধ করছেন বলে জানান আসুরা বেগম ও কুলসুম খাতুন। তারা বলেন নারী চালাচ্ছেন নসিমন সুখ দু:খের গল্প করতে করতে গন্তবে যেতে পরছেন তারা। ফলে খুশি তারা।   
এক নারী চালক হয়েছেন তাদের সহযোগি এজন্য সার্বিক সহযোগিতা করছেন তারা- বলেন-
স্থানীয় ইজি চালক সিরিয়াল সর্দাররা বলেন, জাইদা খাতুন এক নতুন সদস্য তার অগ্রাধিকার দিচ্ছেন তারা। সিরিয়াল ছাড়ায় খেয়াল খুশিমতো যাত্রী বহনে উপার্যন হচ্ছে ভাল।
সংসারের কাজের ফাঁকে সকাল বিকাল ইজি বাইক চালিয়ে দিনে উপার্যন করছেন ৪থেকে ৫শ টাকা। ভালই চলছে সংসার সরকার সহ সবার সহযোগিতা চান তিনি-
র্শাশ,উপজলো মহলিা বষিয়ক র্কমর্কতা রাজ কুমার পালবলেন, সরকার নারীদের সব বিষয়ে অগ্রাধিকার নিয়েছেন। নারীদের প্রশিক্ষনও কর্মসংস্থানের আওতায় আনতে কাজ করছেন মহিলা অধিদপ্তর। কর্মোঠ ও উদ্যোগী নারী জাইদা বিভিন্ন প্রেশা ছেড়ে চালাচেছন ইজিবাইক-অন্য নারীরাও তার দেখে অনুপ্রানীত হবে। প্রশিক্ষন সহ সার্বিক সহযোগিতা করবে উপজেলা মহিলা অধিদপ্তর এমনটাই জানান তিনি।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
সারা দেশ পাতার আরো খবর

Developed by orangebd