ঢাকা : বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • সরকার নদীখননের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে : নৌ-পরিবহনমন্ত্রী          দক্ষতা-জ্ঞান-প্রযুক্তির মাধ্যমেই সক্ষমতা অর্জন সম্ভব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী           বাংলাদেশে এ বছর রেকর্ড পরিমাণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে          জাতীয় নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়নি : সিইসি          আ.লীগ সরকার ছাড়া কোনো দলই এত পুরস্কার পায়নি : প্রধানমন্ত্রী          মোবাইল ব্যাংকিং সেবার চার্জ কমে আসবে : অর্থমন্ত্রী          রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে সু চিকে জাতিসংঘের অনুরোধ
printer
প্রকাশ : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৭:০৮:০০
সার্ভো লুব্রিকেন্টস বাজারে আনলো রানার
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


বিশ্বমানের লুব্রিকেন্টস ব্র্যান্ড ‘সার্ভো’এখন থেকে বাংলাদেশের পাওয়া যাবে। ভারতের অন্যতম শীর্ষ সরকারী পেট্রেলিয়াম কোম্পানি ইন্ডিয়ান অয়েল করপোরেশন লিমিটেড রানার গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান রানার ল্যুব অ্যান্ড এনার্জি লিমিটেডের মাধ্যমে এই লুব্রিকেন্ট পণ্য বাজারজাত করবে।
২৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রানার ল্যুব অ্যান্ড এনার্জি লিমিটেডের সঙ্গে অংশীদারিত্বেওর ভিত্তিতে এই ব্র্যান্ড বাজারে আনার ঘোষণা দেন উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন রানার ল্যুব অ্যান্ড এনার্জি লিমিটেডের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মজিবুর রহমান, সহকারী পরিচালক সৈয়দ নাজিব এম রহমান এবং ইন্ডিয়ান অয়েলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ইন্ডিয়ান অয়েল করপোরেশনের গবেষণার উন্নয়নের ফসল সার্ভো লুব্রিকেন্ট ব্র্যান্ডের উপস্থিতি রয়েছে আফ্রিকা, দক্ষিন-পূর্ব এশিয়া এবং পশ্চিম এশিয়ার ২৭টি দেশে। ভারত ও নেপালের শক্তিশালী অবস্থানের পাশাপাশি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের সার্ভোর সরব উপস্থিতি রয়েছে। বাংলাদেশের বিস্তৃত নেটওয়ার্কের মাধ্যমে রানার ল্যুবঅ্যান্ডএনার্জি লিমিটেড গ্রাহকের দ্বোরগোড়ায় সার্ভোর পণ্যসামগ্রী পৌঁছে দেবে।
অনুষ্ঠানে এ সময় রানার গ্রুপের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান বলেন, রানারের সঙ্গে ইন্ডিয়ান অয়েলের এই অংশীদারিত্বে দেশের বাজারে বিশ্বমানের লুব্রিকেন্ট পণ্য পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক। ভারত তথা এশিয়ার বাজারের সিংহভাগ মার্কেট শেয়ার দখলকারী ব্র্যান্ড সাার্ভো বাংলাদেশের গ্রাহকের আস্থা অর্জনে সক্ষম হবে বলে আমার বিশ্বাস।
তিনি বলেন, সার্ভো বিশ্বের একটি শক্তিশালী ব্র্যান্ড। রানারও বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ড। এই দুই প্রতিষ্ঠানের অংশীদারিত্বে দেশের অটোমেটিভ শিল্প আরো এক ধাপ এগিয়ে যাবে বলে আমার বিশ্বাস।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, বিশ্বখ্যাত সুপার ব্র্যান্ড কাউন্সিল কর্তৃক সার্ভে ‘সুপার ব্র্যান্ড’ হিসেবে গত ১০ বছর ধরে সমাদৃত। জনপ্রিয় ম্যাগাজিন রিডার্স ডাইজেস্টের জরিপে সবচেয়ে বিশ্বস্ত লুব্রিকেন্ট ব্র্যান্ডের স্বীকৃতিও অর্জন করেছে সার্ভো। অটোমোবাইল ও ইঞ্জিনিয়ারিংসহ সংশ্লিষ্ট খাতে সার্ভোর রয়েছে বিশ্বমানের বিভিন্ন ধরনের পণ্য সম্ভার। অটোমেটিভ পণ্যেও মধ্যে রয়েছে ইঞ্জিন অয়েল, ট্রান্সমিশন অয়েল, গিয়ার অয়েল, ব্রেকফ্লুইড, গ্রিস ইত্যাদি। স্টিল, পাওয়ার টেক্সটাইল, মাইনিং ও নির্মাণ শিল্পে সার্ভোর রয়েছে বিস্তৃত লুব্রিকেন্ট পণ্য। এছাড়া ট্রাকটর, পাম্পসহ বিভিন্ন মেশিনারির লুব্রিকেন্ট পণ্য আছে ভারতীয় এই প্রতিষ্ঠানের।
প্রসঙ্গত, ইন্ডিয়ান অয়েল করপোরেশন ফরচুন-৫০০ কেম্পানির তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। সার্ভো ব্র্যান্ডের কার্যকারিতা ও নির্ভরতার কারণে হুন্দাই, ভক্সওয়াগন, টাটা, সুজুকি, লিল্যান্ড, মিৎসুবিশি, ভলভোসহ আরো অনেক বৈশ্বিক প্রতিষ্ঠান এটি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। জাহাজশিল্পে মানবিএমডাব্লিউ, ওয়াটসিলার অনুমোদন রয়েছে। অত্যাধুনিক ব্লেন্ডিংপ্ল্যান্টে সার্ভো ব্লেন্ড ও প্যাকেটজাত করা হয়। গুণগতমানের কারণে সার্ভো আমেরিকান পেট্রোলিয়াম ইনস্টিটিউট (এপিআই), জাপানিজ অটোমোবাইল স্ট্যান্ডার্ডস অর্গানাইজেশন (জাসো), ইউএসমিলিটারি স্পেসিফিকেশন-এর সনদ অর্জন করেছে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd