ঢাকা : বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • সরকার নদীখননের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে : নৌ-পরিবহনমন্ত্রী          দক্ষতা-জ্ঞান-প্রযুক্তির মাধ্যমেই সক্ষমতা অর্জন সম্ভব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী           বাংলাদেশে এ বছর রেকর্ড পরিমাণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে          জাতীয় নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়নি : সিইসি          আ.লীগ সরকার ছাড়া কোনো দলই এত পুরস্কার পায়নি : প্রধানমন্ত্রী          মোবাইল ব্যাংকিং সেবার চার্জ কমে আসবে : অর্থমন্ত্রী          রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে সু চিকে জাতিসংঘের অনুরোধ
printer
প্রকাশ : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৭:২৬:৩১
প্রবৃদ্ধি ৬.৪ শতাংশ হতে পারে : বিশ্বব্যাংক
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 

টাইমওয়াচ রিপোর্ট
চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ৪ শতাংশ হতে পারে বলে জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক।
 
বিশ্বব্যাংক বলছে, বাংলাদেশ সরকার এ বছর ৭ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির যে আশার কথা শুনিয়েছে, তা অর্জন করতে হলে বেশ কয়েকটি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে। এর মধ্যে অন্যতম ঢাকা ও ঢাকার বাইরে বেসরকারি খাতে ‘প্রচুর বিনিয়োগ’ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। যা করতে না পারলে আগামী অর্থবছর শেষে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ৪ শতাংশের বেশি হবে না।
 
আজ বুধবার বিশ্বব্যাংকের ঢাকা কার্যালয়ে ‘বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট আপডেট’ প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।
 
সংস্থাটি বলছে, সম্প্রতি বাংলাদেশে কর্মসংস্থান সৃষ্টির গতি কমে গেছে। এর পেছনে অবকাঠামোগত দুর্বলতা, অর্থিক সংস্কার না হওয়া ও অনানুষ্ঠানিক শ্রম বাজারের আধিপত্য বড় কারণ।
 
এদিকে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) গতকাল তাদের বার্ষিক প্রতিবেদন ‘এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুক ২০১৭’-এ বলেছে, এ বছর বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৯ শতাংশ, যা বিশ্বব্যাংকের ধারণার চেয়ে কিছুটা বেশি।
 
বুধবারের সংবাদ সম্মেলনে বিশ্বব্যাংকের ঢাকা কার্যালয়ের প্রধান অর্থনীতিবিদ জাহিদ হোসেন প্রতিবেদনটি তুলে ধরেন।
 
তিনি বলেন, ‘পর পর দুটি বড় বন্যা ও  সরকারের সিদ্ধান্তহীনতার কারণে চালের দাম ব্যাপকভাবে বেড়ে গেছে। যেসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তা বাস্তবায়নে সময় নেওয়া হয়েছে। শুল্ক কমানো হলেও সেই আদেশ বন্দরে পৌঁছতে সময় লেগেছে। ফলে সরকারের কাছে চালের মজুদ না থাকায় ব্যবসায়ীরা সুবিধা নিয়েছে। চালের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে।’
 
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশ, ভুটান ও নেপালের কান্ট্রি ডিরেক্টর কিমিয়াও ফান ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মেহরীন এ মাহবুব উপস্থিত ছিলেন।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd