ঢাকা : বুধবার, ১৭ জানুয়ারি ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • আঞ্চলিক দেশগুলোর চেয়ে বাংলাদেশে নারীরা এগিয়ে : চুমকি          তিন হাজার বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হবে          সরকারের কাজ সম্পর্কে জনগণকে ধারণা দিতেই উন্নয়ন মেলা          পাবলিক পরীক্ষায় অনিয়ম হলে কঠোর ব্যবস্থা : শিক্ষামন্ত্রী           সালেই বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে : মেনন          বিশ্ব ইজতেমায় বিভিন্ন দেশ থেকে আসছে শতশত মুসুল্লি
printer
প্রকাশ : ০২ অক্টোবর, ২০১৭ ১৫:৩৭:৩৫
রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ রাজি
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বলেছেন, সেনাবাহিনীর নির্যাতন-হত্যা আর ধর্ষণের মুখে রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ রাজি হয়েছে।
তিনি জানান, এ জন্য বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে একটি যৌথ ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করা হবে। দুই দেশের প্রতিনিধিদের নিয়ে শিগগির এ কমিটি ঘোষণা করা হবে। তার আগে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মিয়ানমার সফর করবেন।
২ অক্টোবর সোমবার দুপুরে সফররত মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চির দপ্তরবিষয়ক মন্ত্রী উ কিয়া তিন্ত সোয়ের সঙ্গে বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান এ এইচ মাহমুদ আলী। রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম উপস্থিত ছিলেন।
গত ২৫ আগস্ট শুরু হওয়া নির্যাতনের জের ধরে পাঁচ লাখ এক হাজার ৮০০ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। এদের মধ্যে বেশির ভাগই শিশু ও নারী। রোহিঙ্গাদের ওপর চলা নির্যাতনে নিন্দা জানায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। গত বৃহস্পতিবার এ সংকট সমাধানে মিয়ানমার সরকারকে অবিলম্বে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেজ।
গুতেরেজ মিয়ানমারকে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর সেনা অভিযান বন্ধের আহ্বান জানান। এ ছাড়া অবিলম্বে বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের তাদের স্বভূমিতে ফেরত নেওয়া এবং আক্রান্ত এলাকাগুলোতে জাতিসংঘ ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার কর্মীদের পরিদর্শনের সুযোগ দিতে বলেন।
এ ছাড়া সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকেও রোহিঙ্গা সমস্যা দ্রুত সমাধানের ওপর জোর দেয় পরিষদের সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য। এসব কারণের রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ানমার বেশ চাপে আছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।
এ প্রেক্ষাপটে মিয়ানমারের মন্ত্রীর বাংলাদেশ সফর কোনো কৌশলের অংশ কি না—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বলেন, এ জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয় পাতার আরো খবর

Developed by orangebd