ঢাকা : বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • সরকার নদীখননের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে : নৌ-পরিবহনমন্ত্রী          দক্ষতা-জ্ঞান-প্রযুক্তির মাধ্যমেই সক্ষমতা অর্জন সম্ভব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী           বাংলাদেশে এ বছর রেকর্ড পরিমাণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে          জাতীয় নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়নি : সিইসি          আ.লীগ সরকার ছাড়া কোনো দলই এত পুরস্কার পায়নি : প্রধানমন্ত্রী          মোবাইল ব্যাংকিং সেবার চার্জ কমে আসবে : অর্থমন্ত্রী          রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে সু চিকে জাতিসংঘের অনুরোধ
printer
প্রকাশ : ৩১ অক্টোবর, ২০১৭ ১৪:২৪:৪৪
যশোর-বেনাপোল-কলিকাতা মহাসড়ক বেহাল দশায় পরিণত
এম এ রহিম, বেনাপোল


 


যশোর-বেনাপোল-কলিকাতা মহাসড়ক বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে সড়কটি। পিচ ও পাথর উঠে গিয়ে একাধিক স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। খানা খন্দে ভরা সড়কে ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে বাস ট্রাক ইজিবাইক সহ দূর পাল্লার পরিবহন। ব্যাহত হচ্ছে আমদানি রফতানি পণ্য পরিবহন। প্রায় সময় ঘটছে দূর্ঘটনা। বিকল হচ্ছে যানবাহন। পথচারীদের বাড়ছে দুর্ভোগ। এ থেকে পরিত্রাণ চান যাত্রীরা সহ স্থানীয়রা।    
যশোর বেনাপোল মহাসড়ক মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বন্দর এলাকার মানুষেরা তাদের দাবী বেনাপোল স্থলবন্দর থেকে সরকার কয়েক হাজার কোটি টাকার রাজস্ব পেলেও জনগুরুত্বপূর্ন এই সড়কটি ব্যাবহার অনুপযোগী হয়ে রয়েছে দীর্ঘদিন। দেশ বিদেশের পর্যটক সহ যাত্রীরা নাজেহাল হচ্ছেন। সময় ও অর্থ খরচ বাড়ছে।
পথচারী আমেনা বেগম ও যাত্রী মনির হোসেন বলেন ওপারে ভারতের অংশের কলিকাতা পর্যন্ত রাস্তা অনেক ভাল হয়ে গেছে। ঢাকা কলিকাতা সড়কের যশোর বেনাপোল মহাসড়াকটি জরাজীর্ন সড়কে পরিনত হয়েছে। এযেন দেখার কেহ নেই। বর্তমান সরকার সড়ক শিক্ষা স্বাস্থ্য কৃষি সহ সব ক্ষেত্রে উন্নতি করছেন। সড়কটির দ্রুত সময়ের মধ্যে নির্মানের জোর দাবী জানান তারা।
বিশেষ করে নাভারন-কলাগাছি ঝিকরগাছা, নতুনহাট, পুলের হাট-গদখালি এলাকার রাস্তার করুন অবস্থায় পরিণত হয়েছে। অনেকে চিকিৎসা ব্যাবসা সহ বিভিন্ন কাজে বিকল্প সড়কে যাচ্ছেন যশোরে। যশোর বেনাপোলের ৩৮ কিলোমিটার মহাসড়কের অধিকাংশ স্থানে ভাঙ্গাচোরা কারনে বিকল হচ্ছে পরিবহন। নষ্ট হচ্ছে অর্থ ও সময় ১ ঘন্টার পথ যেতে সময় লাগছে ২থেকে আড়াইঘন্টা। রোগীরা পড়েেছন বিপাকে। রাস্তায় অনেকে অসুস্থ্য হয়ে পড়ছেন। সড়ক সংস্কার ও নির্মাণের দাবী জানান স্থানীয়রা।
বাস চালক-ফরিদ গাজী ও সলেমান মিয়া জানান ভাড়াচোরা সড়কের কারণে তেল খরচ ও সময় লাগছে বেশী। বিকল হচ্চে গাড়ী। যাত্রীদের কাছে অশ্লীল কথা শুনতে হচ্চে তাদের।  
শার্শা উপজেলা সহকারি নির্বাহি প্রকৌশলী মশিয়ার রহমান জানান, বৃষ্টির কারণে বেশী নষ্ট হয় রাস্তা। সড়কও জনপথ বিভাগ সংস্কার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন । অচিরেই এ সড়কটি মেরামত হবে বলে জানান তিনি।  
শার্শা উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মজ্ঞু বলেন, সরকার যোগাযোগ ব্যাবস্থার অনেক উন্নতি করে চলেছে। এ সড়টির উন্নয়নে ফোর লেন সহ মোটা অংকের বরাদ্ধ হয়েছে। অচিরেই রাস্তাটির চলাচলের উপযোগি করে গড়ে উঠবে বলে জানান তিনি।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
বিশেষ প্রতিবেদন পাতার আরো খবর

Developed by orangebd