ঢাকা : শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • আ.লীগকে হারানোর মতো দল বাংলাদেশে নেই : জয়          ইরানে ৬.২ মাত্রার ভূমিকম্প          সরকার নদীখননের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে : নৌ-পরিবহনমন্ত্রী          দক্ষতা-জ্ঞান-প্রযুক্তির মাধ্যমেই সক্ষমতা অর্জন সম্ভব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী           বাংলাদেশে এ বছর রেকর্ড পরিমাণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে
printer
প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর, ২০১৭ ১৪:৪৮:২১
ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ, দাম বেড়েছে কেজিতে ২০ টাকা
এম এ রহিম, বেনাপোল


 


বনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে সোমবার সকাল থেকে ভারতীয় পেয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে স্থানীয় বাজারে পেঁয়াজের দাম প্রতি কেজিতে বেড়েছে ২০ টাকা। প্রতি কেজি ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকায়। দেশী পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৯৫টাকায়। সর্বশেষ শনিবার বিকালে বেনাপোল বন্দরে ৪৮ মে:টন পেয়াজ আমদানি হয়। মার্কেটে পেঁয়াজ সরবরাহ কমে গেছে-ফলে বিপাকে পড়েছেন ক্রেতারা।
 
হঠাৎ করে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য নিয়ম নীতিকে তোয়াক্কা না করেই পেঁয়াজের আমদানি মূল্য বাড়িয়ে দেয় ভারতীয় বানিজ্য মন্ত্রনালয় ন্যাফড। ফলে গত অক্টোম্বর মাসে যেখানে পেয়াজের আমদানি মূল্যছিল প্রতি মে:টন সাড়ে তিনশ মার্কিন ডলার সেখানে বর্তমান রফতানি মূল্য করা হয়েছে ৮৫২ মার্কিন ডলার। এরফলে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান। দেশের বাজারে পেয়াজের দাম গেছে বেড়ে।এথেকে পরিত্রান চান ক্রেতারা।    
ক্রেতা-আবেদা খাতুন ও জাকির হোসেন বলেন, গরীব মানুষ আমরা এভাবে দফায় দফায় সবজির দাম বাড়লে বেকায়দায় পড়েন তারা। যেখানে ২০থেকে ২৫ টাকা দরে পেঁয়াজ কিনতে হ”েচ্ছ ৮০থেকে ১শ টাকায়।  
 
পেঁয়াজ ব্যবসায়ি, রাজু আহম্মেদ বলেন, যেখানে এক সপ্তাহ আগে বেনাপোলের সবজির বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে প্রতিকেজি ৪০থেকে ৬০টাকা। গত তিনদিনের ব্যাবধানে দাম বেড়ে গেছে কেজিতে ২০টাকা। আমদানি বন্ধ সহ সরবরাহ কমে যাওয়ায় দাম বেড়েছে বলে জানান ব্যাবসায়িরা। তবে অনেক অসাধু পেঁয়াজ আমদানিকারক সহ ব্যাবসায়িরা গুদামজাত করেছে পেঁয়াজ। সরকারের নজরদারীর আহব্বান জানান স্থানীয়রা।
বেনাপোল দিয়ে প্রতিদিন প্রায় শত শত টন পেয়াজ আমদানি হয়ে থাকে। তবে রবি ও সোমবার বন্দরে কোন পেয়াজের চালান প্রবেশ করেনি। আমদানি কারক প্রতিষ্ঠান বেশী মূল্যে এ বন্দর দিয়ে কোন পেঁয়াজ আমদানি করেনি বলে জানান বন্দর পরিদর্শক মনির হোসেন।
বেনাপোল আমদানি রফতানি কারক সমিতির যুগ্ন সম্পাদক মহাসিন মিলন বলেন ভারতের বাজারে পেয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় রফতানি মূল্য বাড়িয়ে দেয় তারা। এতে করে দুদেশের ব্যাবসায়িরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। দেশে পেয়াজের দাম আরো যাবে বেড়ে। তবে নতুন পেয়াজ উঠলে দাম কমে আসেব বলে আশা করেন তিনি।  
বেনাপোল বন্দর পরিচালক আমিনুল ইসলাম বলেন,ভারতের বাজারে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি সহ পেয়াজ রফতানি মূল্য বেড়ে গেলেও বেনাপোল বন্দরে পূর্বের এলসি মূল্যে সর্বশেষ শনিবার ৪৮ মে: টন পেয়াজ এসেছে। দাম বৃদ্ধির কোন নির্দেশনা হাতে পাননি বন্দর কর্তৃপক্ষ।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd