ঢাকা : শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম :

  • আ.লীগকে হারানোর মতো দল বাংলাদেশে নেই : জয়          ইরানে ৬.২ মাত্রার ভূমিকম্প          সরকার নদীখননের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে : নৌ-পরিবহনমন্ত্রী          দক্ষতা-জ্ঞান-প্রযুক্তির মাধ্যমেই সক্ষমতা অর্জন সম্ভব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী           বাংলাদেশে এ বছর রেকর্ড পরিমাণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে
printer
প্রকাশ : ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২২:০৮:৪১আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২২:১১:৫০
সংবাদ প্রকাশের পর শিশু রাব্বীর পাশে দাঁড়ালেন ইউএনও
তোফায়েল হোসেন জাকির, গাইবান্ধা


 


“রাব্বির রশি বাঁধা জীবন” শীর্ষক সংবাদটি বিভিন্ন অনলাইন ও প্রিন্ট পত্রিকায় প্রকাশের পর “রাব্বিকে সহোযোগিতায় পাশে দাঁড়ালেন ইউএনও রহিমা খাতুন। গত ১লা ডিসেম্বর ওই সংবাদটি সাদুল্যাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার রহিমা খাতুনের নজরে আসলে বিষয়টি তিনি মানবিক দৃষ্টিতে আমলে নেন।
প্রসঙ্গতঃ গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার নলডাঙ্গা দশলিয়া গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা নুরুন্নবী ও সাবানা বেগমের একমাত্র ছেলে রাব্বী মিয়া (১০। জন্মের ৪/৫ বছর পরেই রাব্বীর মস্তিস্কে বিকৃতি ঘটে। এমতবস্থায় সে এদিক সেদিক ছুটাছুটি করে মানুয়ের সাথে মারামারি করে বেড়াত। এ কারণে তার পরিবারের লোকজন মারামারি আর হারিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় রাব্বীর পায়ে রশি বেধে রাখেন তার পরিবার। বর্তমানে মা না থাকায় রাব্বীকে তার ফুফু লালন পালন করছেন। রাব্বীর দরিদ্র পিতা নুরুন্নবী প্রধান তাকে চিকিৎসা করে সহায় সম্বল হারিয়েছেন। অর্থাভাবে ছেলের আর কোন চিকিৎসা করতে পারছিলেন না।  এ বিষয়ে বিভিন্ন অনলাইন ও প্রিন্ট পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলে নজরে পরে ইউএনও রহিমা খাতুনের। পরে তার নির্দেশে সাদুল্যাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ আবু আহাম্মদ আল মামুন প্রতিবন্ধি রাব্বীর শারিরীক অবস্থা দেখে ১০ দিনের ওষুধ প্রদান করেন। এছাড়াও রাব্বীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাবনা পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানান ইউএনও রহিমা খাতুন।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
সারা দেশ পাতার আরো খবর

Developed by orangebd