ঢাকা : মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • আঞ্চলিক দেশগুলোর চেয়ে বাংলাদেশে নারীরা এগিয়ে : চুমকি          সরকারের কাজ সম্পর্কে জনগণকে ধারণা দিতেই উন্নয়ন মেলা          পাবলিক পরীক্ষায় অনিয়ম হলে কঠোর ব্যবস্থা : শিক্ষামন্ত্রী           সালেই বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে : মেনন          বিশ্ব ইজতেমায় বিভিন্ন দেশ থেকে আসছে শতশত মুসুল্লি
printer
প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ১০:৩৫:১২
এবাদতে মশগুল লাখো মুসল্লী, আজ আখেরী মোনাজত
টঙ্গী সংবাদদাতা


 


৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে মুসলিম মহাসমাবেশ বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হবে আজ। মাঝখানে ৪দিন বিরতি দিয়ে আগামী ১৯ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে ৩দিন ব্যাপী দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা।
এদিকে প্রথম পর্বের ইজতেমার আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে গতকাল সন্ধ্যা থেকেই দূর-দূরান্ত থেকে মুসল্লীরা ট্রেন, বাস, ট্রাক, লঞ্চ, নৌকাযোগে ও পায়ে হেঁটে দলে দলে ইজতেমাস্থলে আসতে শুরু করেছেন। মুসল্ল¬ীদের আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমা ময়দানে আসার এ স্রোত, মোনাজাতের আগ পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলে জানান ইজতেমা আয়োজক কমিটি। আজ রোববার জোহরের নামাজের পূর্বে যে কোন সময় ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরী মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।
গতকাল শনিবার ইজতেমায় আগত মুসল্লীদের মাঝে শনিবার বাদ ফজর বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মো. নূরুর রহমান। বাদ জোহর বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা ড. মো. জাহাদ ও মাওলানা ফারুক হোসেন। এসব বয়ান বাংলাসহ বিভিন্ন ভাষায় তাৎক্ষণিক তরজমা করে মুসল্লীদের শুনানো হচ্ছে।
সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১২টায় আখেরী মোনাজাত: আজ রোববার সকাল ১০টা থেকে ১২টার মধ্যে প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। তাবলিগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বি কাকরাইল জামে মসজিদের ইমাম হযরত মাওলানা যোবায়ের।
বয়ান: ইজতেমার ময়দানে বয়ানে শীর্ষ মুরুব্বী ও ইসলামী চিন্তাবীদরা বলেন, দ্বীন ও ইসলামের দাওয়াত আল্লাহ পাকের অসীম রহমতে ও অনুগ্রহে তাবলীগ জামাতের মাধ্যমে সারা দুনিয়ায় দ্বীন ইসলাম পুনরুজ্জীবিত করে নর-নারীর মধ্যে দাওয়াত পৌঁছে দিতে হবে। হযরত মোহাম্মদ (সা:) উম্মতের জিম্মাদার হিসাবে ঈমানিয়াত, ইবাদত, মোয়ামেলাত ও আখলাক অনুশীলনে জানমাল আল্লাহর রাস্তায় ছেড়ে দিয়ে জিন্দেগীতে কিছু সময় দাওয়াত, তালিম, জিকির, নামাজে মশগুল হওয়ার আহ্বান জানান ইসলামী চিন্তাবিদগণ। এসব বয়ান বাংলা, আরবি, ফার্সি, মালয় ও তামিল, উর্দ্দুসহ কয়েকটি ভাষায় তাবলীগ জামাতের মুুরুব্বীদের তরজমা করে মুসল্লীদের মাঝে শোনানো হচ্ছে।
মহান আল্লাহ তা’আলার নৈকট্য লাভের ব্যাকুলতায় দ্বীনের দাওয়াতে মেহনত করার জন্য ইসলামের মর্মবাণী সর্বত্র পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের দ্বিতীয় দিন শনিবারেও ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা দলে দলে ছুটে আসছেন টঙ্গীর তুরাগ তীর ইজতেমা ময়দানে। বিগত ইজতেমাগুলোতে যৌতুক বিহীন বিয়ে পড়ানোর রেওয়াজ থাকলেও এবার বিশ্ব ইজতেমার অন্যতম আকর্ষণ যৌতুক বিহীন বিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে না।  গতকাল বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের দ্বিতীয় দিনে ইবাদতে মশগুল ছিল উপস্থিত লাখো লাখো মুসল্লী।
তাশকিলের কামরা স্থাপন: ইজতেমার প্যান্ডেলের উত্তর-পশ্চিমে তাশকিলের কামরা স্থাপন করা হয়েছে। বিভিন্ন খিত্তা থেকে বিভিন্ন মেয়াদে চিল্লায় অংশগ্রহণেচ্ছু মুসল্লীদের এ কামরায় আনা হচ্ছে এবং তালিকাভুক্ত করা হচ্ছে। পরে কাকরাইলের মসজিদের তাবলিগি মুরুব্বীদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এলাকা ভাগ করে তাদের দেশের বিভিন্ন এলাকায় তাবলিগি কাজে পাঠনো হবে।
বিশ্ব ইজতেমায় বিদেশি মুসল্লী : গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ জানান, বিভিন্ন ভাষা-ভাষী ও মহাদেশ অনুসারে ইজতেমা ময়দানে বিদেশী মেহমানদের জন্য পৃথক বিদেশী নিবাস নির্মাণ করা হয়েছে। সেখানে তাদের জন্য প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
বয়ানের তাৎক্ষণিক অনুবাদ ঃ  মূল বয়ান উর্দূতে হলেও বাংলা, ইংরেজী, আরবি, তামিল, মালয়, তুর্কি ও ফরাসি ভাষায় তাৎক্ষণিক অনুবাদ করে ইজতেমা ময়দানে আগত মুসল্লীদের শোনানো হচ্ছে। বিভিন্ন ভাষাভাষি মুসল্লীরা আলাদা আলাদা বসেন এবং তাদের মধ্যে একজন করে মুরুব্বী মূল বয়ানকে তাৎক্ষণিক অনুবাদ করে শুনান। মূল বক্তা বয়ানের একটি নির্দিষ্ট অংশ শেষ করার পর অনুবাদের জন্য বিরতি দেন। অনুবাদ শেষ হলে তিনি আবার বয়ান শুরু করেন। এভাবেই ইজতেমা ময়দানে তাবলীগ জামাতের মুরব্বীদের বয়ান চলছে।
আইনশৃংখলা জোরদার ঃ আজ রোববার প্রথম পর্বের আখেরী মোনাজাতের দিন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় দায়িত্ব পালন করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর-রশিদ জানান, ইজতেমা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ইজতেমার আগে ও ইজতেমা চলাকালীন সময়, দুই পর্বের ইজতেমায় আখেরী মোনাজাতের দিন মুসল্লীর সংখ্যা অধিক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় এবার আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা পাঁচ সেক্টরে বিভক্ত হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। ইজতেমা মাঠ প্রবেশপথসহ পুরো ইজতেমা ময়দানে বসানো হয়েছে হয়েছে সিসি ক্যামেরা।
এছাড়াও থাকছে মেটাল ডিটেক্টর, বাইনোকুলার ও নাইটভিশন গগল্স। র‌্যাবের ইন্টেলিজেন্সের সদস্যরা কড়া নজরদারি রাখছেন, যাতে ইজতেমা মাঠ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ডসহ যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে না পারে। প্রতিটি খিত্তায় বিশেষ টুপি পরিহিত ও সাদা পোশাকধারী গোয়েন্দা সদস্যও অবস্থান করছেন। তারা কোন প্রকার সন্ত্রাসী তৎপরতার ইঙ্গিত পেলে বিশেষ সিগনালের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের তৎক্ষণিক অবহিত করবেন বলে তিনি জানান। এছাড়াও তারা ইজতেমা মাঠসহ আশপাশের কোথায় কি হচ্ছে না হচ্ছে প্রত্যক্ষ করার জন্য ল্যাপটপ কম্পিউটারের স্ক্রিনে সার্বক্ষণিক নজর রাখছেন। গাড়িসহ ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের সতর্কাবস্থায় রাখা হয়েছে। নিরাপত্তার স্বার্থে বিভিন্ন স্থানে বসানো র‌্যাবের ও পুলিশের পর্যবেক্ষণ টাওয়ার থেকে পর্যবেক্ষক দল সার্বক্ষণিক বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে মুসল্লীদের যাতায়াত ও অবস্থান পর্যবেক্ষণ করছেন। এছাড়াও র‌্যাবের পর্যবেক্ষণ পোস্ট দল, ইন্টামিডিয়েট পোস্ট দল, নৌ টহল, হেলিকপ্টার টহল, স্টাইকিং রিজার্ভ, বোম্ব স্যুইপিং দল, চিকিৎসা সহায়তা কেন্দ্র, একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ ও সিসি টিভি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ চালু রয়েছে।
গত দুই দিনে ১ বিদেশীসহ ৪ মুসল্ল¬ীর মৃত্যু:  
ইজতেমায় গত দুই দিনে এক বিদেশীসহ ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল প্রথম দিনে মালয়েশিয়ার নূর হামদিন (৫৫), পিতা- আব্দুর রহমান ও রফিকুল ইসলাম (৫০), পিতা-সুজার আলী, চর রুহিতা লক্ষীপুর মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে গত দুই দিনে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।
যানবাহন নিয়ন্ত্রণ: আজ রোববার আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে আসা মুসল্লীদের অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ নিয়ন্ত্রণের জন্য দক্ষিণে আন্তর্জাতিক হযরত শাহ্ জালাল বিমানবন্দর, পশ্চিমে উত্তরা-১১ নং সেক্টর, উত্তরে বোর্ড বাজার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, চৌরাস্তা পর্যন্ত ও পূর্বে পূবাইল এলাকা পর্যন্ত যানবাহন বিশেষভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে বলে গাজীপুর জেলা ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।
গাজীপুরের ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পুলিশ সুপার জানান, শনিবার রাত ৩টার পর থেকে রোববার আখেরি মোনাজাতের সময় পর্যন্ত ভোগড়া বাইপাস মোড় থেকে কুড়িল বিশ্বরোড, সাভারের বাইপাইল থেকে আব্দুল্লাহপুর পর্যন্ত অ্যাম্বুলেন্স ও পুলিশের গাড়ি ছাড়া সাধারণ যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে ওই এলাকায় পুলিশের স্টিকারযুক্ত সীমিত সংখ্যক গাড়ি চলাচল করবে।
উল্লেখ্য, এবারের দুই পর্বের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব গত ১২জানুয়ারী থেকে শুরু হয়। আজ রোববার ১৪ জানুয়ারি আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে ৩দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। মাঝে ৪দিন বিরতি দিয়ে আগামী ১৯ জানুয়ারী শুক্রবার থেকে শুরু হবে ৩দিনব্যাপী দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা। আগামী ২১ জানুয়ারি রোববার আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে মুসলিম জাহানের ধর্মীয় মহাসমাবেশ ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
ধর্মতত্ত্ব পাতার আরো খবর

Developed by orangebd