ঢাকা : সোমবার, ১৮ জুন ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • গণতন্ত্র এখন সুরক্ষিত : প্রধানমন্ত্রী          ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার বাজেট পেশ          নারীবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সকলকে সহযোগিতার আহবান স্পিকারের          প্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী          তিন হাজার বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হবে
printer
প্রকাশ : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৭:০৫:২৭আপডেট : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ২১:৪১:৫৮
কম্পিউটার কারখানার যাত্রা শুরু ওয়ালটনের
ফেরদৌস হোসেন বাবু


 

কম্পিউটার কারখানার যাত্রা শুরু করলো ওয়ালটন। প্রাথমিকভাবে মাসে ৬০ হাজার ল্যাপটপ, ৩০ হাজার ডেস্কটপ এবং ৩০ হাজার মনিটর তৈরির লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছে।
 
গাজীপুরের চন্দ্রায় এ কারখানায় বাংলাদেশে প্রথমবারের মত নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় মাদারবোর্ড তৈরি করবে ওয়ালটন। এছাড়া তৈরি করা হবে মনিটর।
 
১৮ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকালে গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটনের হাইটেক ও মাইক্রোটেক ইন্ডাস্ট্রিজ পার্কে এই কারখানার উদ্বোধন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।
 
অনুষ্ঠানে মোস্তাফা জব্বার বলেন, দুঃসাহস ও আকাশের দিকে তাকানোর ক্ষমতা তাদের আছে। দেশে কম্পিউটার সংযোজন হলেও উৎপাদনের মাধ্যমে তারা এ সাহস দেখিয়েছে।
 
সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার ও সার্ভিস রপ্তানিতে ১০ শতাংশ ক্যাশ ইনসেনটিভ দিতে খুব দ্রুত এসআরও জারি করা হবে বলে জানান মন্ত্রী।
 
প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, সম্ভবনাকে বাস্তবে পরিণত করেছে ওয়ালটন। দেশে বর্তমানে ৫ লাখ কম্পিউটার আমদানি করতে হয়। সরকারি ক্রয়ে দেশিয় পণ্য উৎসাহিত করা হবে।
 
২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশ হার্ডওয়্যার রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে পরিচিতি পাবে বলে আশা প্রকাশ করেন পলক।
 
এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম শামসুল আলম ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম আশরাফুল আলম, ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম মঞ্জুরুল আলম।
 
৩ লাখ বর্গফুটের বিশাল এই কারখানায় ইন্টেলের সর্বশেষ প্রজন্মের প্রসেসর যুক্ত করে ল্যাপটপ ও ডেস্কটপ তৈরি হবে এই। এরইমধ্যে মাদারবোর্ড তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে কম্পিউটারের অন্যান্য যন্ত্রাংশ এবং পেন ড্রাইভ, কিবোর্ড ও মাউস উৎপাদনে যাবে ওয়ালটন।
 
ওয়ালটন কর্মকর্তারা জানান, কারখানার জন্য জার্মান ও জাপান প্রযুক্তির যন্ত্রপাতি আনা হয়েছে। দেশী-বিদেশী প্রকৌশলীসহ কারখানায় সব মিলিয়ে প্রায় এক হাজার কর্মী নিয়োজিত রয়েছেন। প্রাথমিকভাবে প্রায় এক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে কম্পিউটার উৎপাদনে। শিগগিরই কম্পিউটার রপ্তানি শুরু করবে কোম্পানিটি। মার্চে নেপালের সঙ্গে এ বিষয়ে একটি চুক্তিও হওয়ার কথা রয়েছে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd