ঢাকা : বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • দুই দেশের সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাক : মমতা           কারও মুখের দিকে তাকিয়ে মনোনয়ন দেয়া হবে না : প্রধানমন্ত্রী          ২২তম অধিবেশন চলবে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত          জীবনমান উন্নয়নের শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী          দেশের উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে          বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছতে পারবে না : জয়
printer
প্রকাশ : ০২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৮:৪১:৫০
ডাকাতি ছেড়ে রিক্সা চালিয়ে জীবিকানির্বাহ করছেন আইয়ুব
ঝিনাইদহ সংবাদদাতা


 


ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার কাঁচেরকোল ইউনিয়নের মধুদাহ গ্রামের আব্দুর রউফ মোল্লার ছেলে আইয়ুব আলী (৫৫)। অনেকেই আইয়ুব ডাকাত বলে চিনে তাকে। ২ সন্তানের পিতা সে। সবাই এখন স্বাবলম্বী। জীবনের প্রায় অর্ধেক সময় জেল খানায় কেটেছে তার। বর্তমানে সকল প্রকার অন্যায় অপরাধ থেকে দুরে থেকে রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন সে। জানা যায়, আইয়ুব হোসেন শহরের নতুন কোর্ট এলাকায় একটি ডাকাতি মামলায় ১৪ বছর জেলে থেকে গত ৭ বছর আগে বের হন। এরপর থেকে আর গ্রামে ফেরেনি তিনি। লোকলজ্জার ভয়ে বাবার পৈতৃক ভিটা ছেড়ে সদর উপজেলার ঝিনুকমালা আবাসনে বসবাস করছেন। কিছুদিন আগে দেখা হয় পাগলা কানাই ইউনিয়নের খাজুরা গ্রামের স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আবু সাঈদের সাথে। তিনি আইয়ুব আলীকে অপরাধ জগতে ফিরে না যাওয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করেন। এরপর থেকে আইয়ুব আলী সকল প্রকার অন্যায় কাজ থেকে দুরে থেকে রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন। তিনি বলেন, আমার যৌবন কাল কেটেছে জেল খানায়। জীবনের অর্থ আজ বুঝতে পেরেছি। তাই আমি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছি। এলাকার সকলে আমাকে খারাপ চোখে দেখত। এখন আর আমি খারাপ কাজ করিনা। ভবিষ্যতে কোন অপরাধ করব না। আমার সামনে যদি কেউ অন্যায় অপরাধ করে তাহলে তাকে বাঁধা দিব। তিনি দৈনিক মাথাভাঙ্গা পত্রিকার সাংবাদিক জাহিদুর রহমান তারিককে বলেন, অন্যায় কাজ অনেক আগেই ছেড়ে দিয়েছি। তবুও কিছু মানুষ আমাকে খারাপ চোখে দেখে। তাইতো প্রতিদিন ঝিনাইদহ সদর থানায় এসে হাজিরা দিই। সদর থানার ওসি এমদাদুল হক স্যার খুব ভালো মানুষ। তিনি আমাকে আরও ভালোভাবে চলার পরামর্শ দিয়েছেন। আমি চাই তার পরামর্শ অনুযায়ী বাকি জীবনটা সৎ ও নিষ্ঠার সাথে কাটাতে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
সারা দেশ পাতার আরো খবর

Developed by orangebd