ঢাকা : মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • গণতন্ত্র এখন সুরক্ষিত : প্রধানমন্ত্রী          ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার বাজেট পেশ          নারীবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সকলকে সহযোগিতার আহবান স্পিকারের          প্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী          তিন হাজার বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হবে
printer
প্রকাশ : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০৬:২৪
অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আজ
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


‘আমার ভায়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি...।’
আজ অমর একুশে ফেব্রুয়ারি। মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। বাঙালি জাতির জীবনে একটি গর্বের দিন, অবিস্মরণীয় দিন। ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসন ও শোষণের শৃঙ্খল থেকে মুক্ত হতে না হতেই পাকিস্তানিরা আমাদের মায়ের ভাষা বাংলাকে কেড়ে নিতে চায়। কায়েদ-এ আযম মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ঘোষণা দিলেন- ‘উর্দুই হবে পাকিস্তানের একমাত্র রাষ্ট্রভাষা’।

 

সর্বপ্রথম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাংলার ছাত্র সমাজ এই ঘোষণার বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠে রাজপথে স্লোগান দিয়েছিল ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’। মায়ের ভাষার অধিকার ও প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম ছিল বাঙালি জাতির সব বীরত্বগাথা অর্জনের প্রথম সোপান। শেখ মুজিবুর রহমানকে রাষ্ট্রভাষা সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকার কারণে কারাবরণ করতে হয়েছিল। এই দিনটি বাঙালির আত্মচেতনা, অন্যায় ও শোষণের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ করতে শিখিয়েছে। এই দিনটি বাঙালি জাতি হিসেবে আত্মপ্রতিষ্ঠা, আত্মবিকাশ ও আত্ম বিশ্লেষণের দিন।

 

অমর একুশের সংগ্রামে শহীদ ভাষা সংগ্রামী রফিক, শফিক, সালাম, বরকত ও জব্বার-এর পূণ্য স্মৃতি ও চেতনাকে বুকে ধারণ করেই ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাঙালি জাতি স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। ’৫২-এর ভাষা আন্দোলনের বীর শহীদদের মতো নিজের জীবনের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে অসংখ্য বীরযোদ্ধা মুক্ত করেছেন আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি, প্রিয় বাংলাদেশকে। পৃথিবীর বুকে দিয়েছেন লাল সবুজের পতাকাসংবলিত একটি মানচিত্র, দিয়েছেন একটি স্বাধীন, সার্বভৌম দেশ।

 

দিনটিতে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। এছাড়া জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ পৃথক বাণী দিয়েছেন। দিনটি উপলক্ষে জাতীয় দৈনিকে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হবে। রেডিও, সরকারি ও বেসরকারি টেলিভিশন বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করবে।

 

একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রথমেই পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী। এরপর জাতীয় সংসদের স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকার, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, বিরোধী দলের নেতা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি শহীদ বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। এরপর একে একে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন ঢাকায় অবস্থিত বিদেশি মিশন ও দাতাসংস্থার কূটনীতিকরা। তাদের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে প্রস্থানের পর সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেয়া হবে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য।  

 

প্রিয় মাতৃভাষার আত্মমর্যাদা, অধিকার রক্ষা, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্ভাসিত চরম ত্যাগে দীপ্ত শহীদদের রক্তে রঞ্জিত দিবসটি বাঙালি জাতির সাথে প্রতিবারের মতো এবারও আওয়ামী লীগ শ্রদ্ধাবনতচিত্তে স্মরণ ও পালন করবে।

 

আওয়ামী লীগের কর্মসূচি
অমর একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। বাঙালি জাতির জীবনের এক অবিস্মরণীয় দিন। প্রিয় মাতৃভাষার মর্যাদা-অধিকার রক্ষা, স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্ভাসিত অগণিত শহীদদের রক্তে রঞ্জিত দিবসটি আওয়ামী লীগ সমগ্র বাঙালি জাতির সাথে বরাবরের মতো এবারো শ্রদ্ধাবনতচিত্তে স্মরণ ও পালন করবে। এ জন্য দলটির পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে আছে-

 

২১ ফেব্রুয়ারি  বুধবার : রাত ১২টা ১ মিনিটে একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ। ভোর সাড়ে ৬টায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু ভবনসহ সারাদেশে সংগঠনের সব শাখা কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন। সকাল ৭টায় কালো ব্যাজ ধারণ, প্রভাতফেরি সহকারে আজিমপুর কবরস্থানে ভাষা শহীদদের কবরে ও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন। (নিউ মার্কেটের দক্ষিণ গেট থেকে প্রভাতফেরী শুরু হবে)।
২৪ ফেব্রুয়ারি  শনিবার : বিকেল ৩টায় আলোচনা সভা। স্থান : কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটশন মিলতনায়তন। সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আলোচনা করবেন দেশের বরেণ্য বুদ্ধিজীবী ও জাতীয় নেতৃবৃন্দ।

 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এক বিবৃতিতে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি অমর একুশে ফেব্রুয়ারি স্মরণে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের সব কর্মসূচি যথাযথভাবে পালনের জন্য আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীসহ সংগঠনের সব সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয় পাতার আরো খবর

Developed by orangebd