ঢাকা : শনিবার, ২৬ মে ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • অটিজম আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াতে আহবান প্রধানমন্ত্রীর          নারীবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সকলকে সহযোগিতার আহবান স্পিকারের          প্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী          তিন হাজার বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হবে           সালেই বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে : মেনন
printer
প্রকাশ : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৭:২৬:৫৬আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৮:২০:৪৩
ভারত ও বাংলাদেশের সম্পর্ক আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে ব্যপকভাবে দৃশ্যমান হবে


 


বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শৃংলা বলেছেন, ভারতীয় বাজারে বাংলাদেশী পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশের সবধরনের বাধা অপসারনের চেষ্টা করা হচ্ছে। অবকাঠামোগত ও যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়নের লক্ষ্যে ভারত ১০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা করেছে। জল, স্থল, রেলপথ সহ দ্রুত ও সহজ যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতির জন্য ইতিমধ্যে কাজ অনেকদূও এগিয়ে গিয়েছে। সিলেট ও খুলনা জেলায় ভারতীয় হাইকমিশনের শাখা খোলা হচ্ছে।
২৭ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ফোরাম অব বাংলাদেশ (আইবিএফবি) ও ইন্ডিয়ান ইম্পোর্ন্টারস চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (আইআইসিসিআই) এর যৌথ আয়োজিত ‘বাংলাদেশ- ভারত ব্যবসায়িক সুযোগ-সুবিধা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে এসব কথা বলেন তিনি। তিনি দেশের ব্যবসা পরিবেশকে উন্নত করার লক্ষে আইবিএফবি’র কার্যক্রমের প্রশংসা করেন।
বাণিজ্য মন্ত্রলায়ের যুগ্ম সচিব মোঃ হাফিজুর রহমান বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন যে, দক্ষিণ এশিয়া এখন সমৃদ্ধি ও উন্নয়নের লক্ষ্যে ব্যপকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। অর্থনীতির ক্ষেত্রে ভারত ও বাংলাদেশের সম্পর্ককে আরো এগিয়ে নিয়ে যাবার লক্ষ্যে বাণিজ্য মন্ত্রনলায় কাজ করে যাচ্ছে।
সেমিনারে আবিএফবি’র পরিচালক এম এস সিদ্দিকি ও আইআইসিসিআই এর পরিচালক  টি. কে পান্ডে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন।
আবিএফবি’র সভাপতি হাফিজুর রহমান তাঁর সূচনা বক্তব্যে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার লগ্নে  ভারতের সমর্থন ও সহযোগিতার  জন্য কৃতজ্ঞতা প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এশিয়ার দ্রুততম ক্রমবর্ধমান অর্থনীতিতে এক দৃষ্টান্ত। ভৌগোলিকভাবে বাংলাদেশ ভারতের উত্তর –পূর্বাঞ্চল এবং ভারতের বাকি অংশগুলির মধ্যে অবিস্থিত। উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের বাইরে উৎপাদিত পণ্য ও পণ্য অপ্রচলিত কারণ, ভারতের বাকি অংশের পরিবহনের উচ্চ খরচ। এই প্রসঙ্গে, বাংলাদেশ উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের জন্য পণ্য ও পণ্যগুলির নিকটতম এবং সবচেয়ে ব্যয়বহুল উৎস হিসাবে কাজ করতে পাওে, যা এই অঞ্চলে নির্মিত হয়না। তিনি আশা করেন যে, বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসায়িক সুযোগ এবং বিদ্যমান বাণিজ্য বাধাগুলির বিষয়ে আলোচনা করে এর সমাধান খুজতে সক্ষম হবে।
 
আবিএফবি’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র জনাব মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরীর সচ্ঞালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আইআইসিসিআই’র সভাপতি জনাব এ কে সাক্সেনা সহ ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd