ঢাকা : রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর          ডিএসসিসির ৩,৬৩১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা          রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর          সংলাপের জন্য ভারতকে ৫ শর্ত দিল পাকিস্তান          এরশাদের শূন্য আসনে ভোট ৫ অক্টোবর          বাংলাদেশে আইএস বলে কিছু নেই : হাছান মাহমুদ
printer
প্রকাশ : ০৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১১:১৪:১৮আপডেট : ০৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১১:২৮:৪০
প্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : শিক্ষামন্ত্রী
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, প্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, সত্য-মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক প্রশ্ন ফাঁস করে যারা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের ক্ষতি করতে ব্যর্থ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, তাদের ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।
শিক্ষামন্ত্রী ২ এপ্রিল সোমবার উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষা শুরু উপলক্ষে ঢাকায় সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজে পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন।
শিক্ষামন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রশ্ন ফাঁসমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠানে যা যা করা প্রয়োজন, আমরা সেসব ব্যবস্থা নিয়েছি।
সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠানে নুরুল ইসলাম নাহিদ ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক এবং দেশবাসীর কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন। তিনি বলেন, কোন সেটে পরীক্ষা নেয়া হবে, তা জানিয়ে পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে কেন্দ্র সচিবের কাছে এসএমএস পাঠানো হয়েছে। তারপরই একাধিক সেটের মধ্য থেকে ওই সেটের নিরাপত্তা ট্যাপ খোলা হয়েছে। এ ব্যবস্থা প্রশ্ন ফাঁসের যেকোন প্রচেষ্টাকে রুখতে পারবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন ও অতিরিক্ত সচিব চৌধুরী মুফাদ আহমদ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর মো. মাহাবুবুর রহমান এবং ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. জিয়াউল হক এসময় উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে শিক্ষামন্ত্রী পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিবের কক্ষে প্রশ্নপত্রের খামের নিরাপত্তা ট্যাপ পর্যবেক্ষণ করেন এবং পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে ট্যাপ খুলে দেখান। শিক্ষামন্ত্রী পরীক্ষা কেন্দ্রের কয়েকটি কক্ষও পরিদর্শন করেন।
উল্লেখ্য, গতকাল থেকে শুরু হওয়া এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ১৩ লাখ ১১ হাজার ৪৫৭ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। মোট ২ হাজার ৫৪১টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
শিক্ষা পাতার আরো খবর

Developed by orangebd