ঢাকা : বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • দুই দেশের সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাক : মমতা           কারও মুখের দিকে তাকিয়ে মনোনয়ন দেয়া হবে না : প্রধানমন্ত্রী          ২২তম অধিবেশন চলবে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত          জীবনমান উন্নয়নের শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী          দেশের উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে          বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছতে পারবে না : জয়
printer
প্রকাশ : ০৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১৮:২১:৩০
সাংবাদিক সেতু’র এলএলবি ডিগ্রী অর্জন
নওগাঁ সংবাদদাতা


 


বড় হওয়ার ইচ্ছা শক্তিই মানুষকে বড় করে তোলে। শিক্ষা, সাধনা, চেতনাশীল মন, এরই নাম ছাত্র জীবন। সাংবাদিক ও সার্ভেয়ার মাহবুবুজ্জামান সেতু জয়পুরহাট আইন কলেজ, জয়পুরহাট থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে এলএলবি ফাইনাল পর্ব পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে কৃতিত্বের সহিত উত্তীর্ণ হয়েছেন। মাহবুবুজ্জামান সেতু এলএলবি ফাইনাল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ায় তার মা হাসিনা বেওয়া আল্লাহ্র দরবারে শুকরিয়া আদায় সহ সকলের কাছে ছেলের উজ্জল ভবিষ্যতের জন্য দোয়া কামনা করেছেন।
মাহবুবুজ্জামান সেতু জন্মের পর থেকে তার মা বাবার ইচ্ছে ছিল তাদের ছেলে লেখা পড়া শিখে একদিন মানুষের মত মানুষ হবে এবং বাস্তব জীবনে কোন একটা সরকারী চাকুরীতে যোগদান করবে। কিন্তু সে আশায় গুঁড়েবালি। কেননা, অনেক ছোট বেলায় ২০০৬ সালে সে তার বাবা মরহুম আকবর আলী মন্ডলকে চিরদিনের জন্য হারিয়েছে। তার বাবার মৃত্যুর পর নানান প্রতিবন্ধকতার শিকার হয়ে থেমে যায়নি তার লেখা পড়ার আগ্রহ। জীবন চলার পথে হাজারো বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে সে তার মূল লক্ষ্যে পৌছতে অটুট। তার দৃঢ় মনোবলই আজ তাকে এ পর্যন্ত এনেছে। আর তাকে লেখাপড়ায় সার্বক্ষনিক উৎসাহ, অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন তার মা,ছোট ভাই শামসুজ্জামান সাজু, বড় বোন আলেয়া খাতুন লিপি, শামছুন্নাহার পপি, মামা আজিজার রহমান, আলহাজ্ব কায়েম উদ্দিন,জব্বার, মমতাজ, দুলাভাই আব্দুল মান্নান, গোলাম সারোয়ার সহ হিতাকাঙ্খী, শুভাকাঙ্খী, শুভানুধ্যায়ী, শিক্ষক, বন্ধুবান্ধব, আত্মীয় স্বজন এবং সহকর্মীরা। পরিবারের সকলের দোয়া এবং ইচ্ছা সেতু এক সময় আইন পেশার মাধ্যমে সমাজের সাধারন অসহায় মানুষের সেবা করবেন। এছাড়াও সাংবাদিক,সার্ভেয়ার পেশার পাশাপাশি আইনজীবি হয়ে সমাজের আইন বঞ্চিত অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াবেন।
তার এমন কৃতিত্বে তার ভাগ্নে যোবায়ের হোসেন রুম্মান, ভাগ্নী মাহবুবা আক্তার শ্রাবণী, স্বর্ণালী, সোহামণি, সামিহা মামাকে মোবারকবাদ জানিয়েছেন। মামার এমন সাফল্যে তারা অত্যন্ত খুশি। তাদের আশা সেতু মামা একদিন নিজেকে সৃজনশীল এবং মডেল হিসেবে উপস্থাপন করবে। কেননা কষ্ট কখনো বৃথা যায় না।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
শিক্ষা পাতার আরো খবর

Developed by orangebd