ঢাকা : শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • জাতীয় নির্বাচন ২৩ ডিসেম্বর          নির্বাচনের তারিখ পেছানোর কোনো সুযোগ নেই : সিইসি          আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার বুধবার থেকে নেবেন প্রধানমন্ত্রী          দুই দেশের সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাক : মমতা          জীবনমান উন্নয়নের শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছতে পারবে না : জয়
printer
প্রকাশ : ১৭ আগস্ট, ২০১৮ ২২:৩১:৫৭
বন্দর উন্নয়নে ১৭৫ একর জমি অধিগ্রহন করা হবে বেনাপোলে
এম এ রহিম, বেনাপোল


 

বাংলাদেশ সরকারের নৌ ও পরিবহন মন্ত্রী শাহজাহান খাঁন এমপি বলেন দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। বর্হিবিশ্বের সাথে বেড়েছে বাণিজ্য। দেশকে অর্থনৈতিকভাবে স্বয়ংস্বপ্ন,উন্নতি করতে হলে দেশের সব বন্দরকে আধুনিকায়নের প্রয়োজন।এর ধরাবাহিকতায় বেনাপোল স্থলবন্দররের কাজকর্মকে আরো গতিশীল করতে ১৭৫একর জমি অধিগ্রহন করা হবে বলে জানান তিনি। 
 
শুক্রবার দুপুরে বেনাপোল চেকপোষ্ট প্যাসেজ্ঞার টার্মিনাল বন্দর ব্যাবহারকারী বিভিন্ন সংগঠন  প্রশাসন ও ব্যাবসায়িদের সাথে মতবিনিময় সভায় বেনাপোলে একোয়ারকৃত ২৬একর জমির চেক হস্তান্তরকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। এদিন সকাল মন্ত্রী বন্দরের বিভিন্ন শেড ও এয়ার্ড পরিদর্শন করেন। এসময় মন্ত্রীকে শ্রমিকদের পক্ষে ফুলদিযে বরন করে নওেয়া হয়। শ্রমিকদের রেষ্ট হাউজ নির্মান সহ নিরাপদ পানির ব্যাবস্থা গ্রহনে বিভিন্ন সিন্ধান্ত নেওযার আশ্বাশ দেন। 
 
বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান অতিরিক্ত সচিব-তপন কুমার চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় বক্তব্য রাখেন-আব্দুস সামাদ সচিন নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয়। যুগ্ন সচিব হাবিবুর রহমান,বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন,বেনাপোল কাষ্টম কমিশনার বেল্লাল হোসেন চৌধুরী,জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল,পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন,বন্দর পরিচালক আমিনুর রহমান,,যশ্রো ৪৯ বিজিবি ভারপ্রাপ্ত সিও লে: মেজর নজরুল ইসলাম,বাংলাদেশ ভারত চেম্বার অব কমার্সের উপ কমিটির চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান,সিএন্ডএফ সভাপতি মফিজুর রহমান সজন,সহ সভাপতি আলহাজ্ব নুরুজামান,সাংবাদিক মহাসিন মিলন সহ প্রশাসন ও ব্যাবসায়ি সংগঠনের নেতারা বক্তব্য রাখেন। প্যাসেজ্ঞার টার্মিনাল আরো আধুনিক,বন্দর প্রসস্ত,সড়কে যানজট রোধ,বিজিবি চেকপোষ্ট অপসারন,স্বাস্ব্যসবাই এমবুলেন্স ও ঔষধ প্রদান সহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়। পর্যায়ক্রমে সব কাজ করা হবেন বলে জানান তিনি। এছাড়াও যাত্রীসেবার মান উন্নয়নে ভারত বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট কতর্ৃৃপক্ষকে একসাথে বসে কাজ করতে বন্দর সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওযা হয়।প্যাসেজ্ঞার টার্মিননালে এসি লাগানো-চেকিং ব্যাবস্থার উন্নয়ন, বন্দরে পড়ে থাকা মালামাল টেন্ডার দিতে দ্রুত ব্যাবস্থাগ্রহনের নির্দেশনা দেন তিনি। নৌ সচিব তার বক্তব্যে বলেন এবার শুধু ১৭৫ একর জমি অধিগ্রহন নয় প্রয়োজনে ৫শতাধিক বা হাজার একর জমি অধিগ্রহন করে স্থলবন্দরকে আরোগতিশীল করা হবে। এজন্য স্থানীয়দেরকে জমি দেওয়ার আহব্বান জানানো হয়। ব্যাবসায়িদেরকে এ বিষয়ে সহেযোগিতা করা আহব্বান জানান তিনি।
 
তিনি আরো বলেন-দেশে ৩০টি নৌ ও স্থলবন্দর রয়েছে আরো ১০টি বন্দর চালু করা  হচ্ছে। পায়রা বন্দরের পর সর্বশেষ সোনাহার বন্দর চালু করা হবে। এদিকে বেনাপোল বন্দরে পন্য ও যানজট রোধে বিভিন্ন প্রদক্ষেপ গ্রহনের সুপারিশ ও বাস্তবায়নের নির্দেশনা দেওয়া হয়। 

printer
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয় পাতার আরো খবর

Developed by orangebd