ঢাকা : শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম :

  • সততার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে : সিইসি          নির্বাচনের তারিখ পেছানোর কোনো সুযোগ নেই : সিইসি          দুই দেশের সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাক : মমতা          জীবনমান উন্নয়নের শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছতে পারবে না : জয়
printer
প্রকাশ : ২৫ অক্টোবর, ২০১৮ ১৩:৫৮:১৫
উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ : স্পিকার
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিরলস প্রচেষ্টা, আত্মবিশ্বাসী ও দৃঢ়চেতা মনোবল এবং কঠোর পরিশ্রমের ফলে বাংলাদেশ একটি উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, বাঙালি জাতি ও বাংলাদেশকে বিশ্বের মাঝে একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করছেন। বাংলাদেশ এখন বিশ্বের কাছে উন্নয়নের মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।
স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭১তম জন্মদিন উপলক্ষে বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে লেখা ‘পিস অ্যান্ড হারমোনি’ কবিতা গ্রন্থের প্রকাশনা উৎসবে প্রধান অতিথির ভাষনে এই বক্তব্য রাখেন। আানিস মোহাম্মদ অনূদিত ও অধ্যাপক আহমেদ রেজা সম্পাদিত ‘পিস অ্যান্ড হারমোনি’ কবিতা গ্রন্থটিতে দেশের খ্যাতিমান ৭১ জন কবির শেখ হাসিনাকে নিয়ে লেখা ৭১টি কবিতা ইংরেজী ও বাংলা উভয় ভাষায় প্রকাশিত হয়েছে।
বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে বইটির প্রকাশনা উৎসব কমিটি আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) ড. নাসরিন আহমাদ। সভাপতিত্ব করেন উৎসব কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপিকা পান্না কায়সার। আরো বক্তব্য রাখেন সাবেক সচিব আজিজুর রহমান আজিজ, ড. আবুল আজাদ, বইটির সম্পাদক অধ্যাপক আহমেদ রেজা, অভিনেত্রী শমী কায়সার ও বইটির অনুবাদক আনিস মোহাম্মাদ।
কেন্দ্রীয় খেলাঘরের শিশু শিল্পীদের ‘আনন্দলোকে মঙ্গলালোকে বিরাজ শত সুন্দর’ গানটি পরিবেশনের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা ঘটে। এতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর ও বইটির ওপর দুটি প্রমাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। মঞ্চের পর্দায় সারাক্ষণ বইটিতে লেখা কবিতার ৭১ জন কবির প্রতিকৃতি প্রদর্শিত হয়। আলোচনা শেষে বুলবুল ললিতকলা একাডেমির শিল্পীরা কবিদের কবিতার ওপর গান পরিবেশন এবং কবিদের স্বকণ্ঠে কবিতা পাঠ অনুষ্ঠিত হয়।
স্পিকার ড. শিরিন বইটি সম্পর্কে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবন ও কর্মের এমন কোনো দিক নেই, যা কবিরা তাদের কবিতায় বলেননি। বইটি বাংলা কবিতার ভুবনে অনন্য স্বাক্ষর হয়ে থাকবে। কেন না, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বড় শক্তি হচ্ছে দেশবাসির প্রতি গভীর আত্মবিশ্বাস এবং মানুষের ভালোবাসা। প্রধানমন্ত্রীর এই ভালোবাসা প্রাপ্তি ও তার প্রতি কবিদের প্রানান্ত বিশ্বাসের প্রতিফলন ঘটেছে কবিতাগুলোতে। তিনি বইটিতে লেখা কবিতার কবিদের বিশেষ ধন্যাবাদ জানান।
জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বইটি সম্পর্কে বলেন, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনাকে নিয়ে তো অগণিত কবিতা রচনা করেছেন আমাদের কবিরা। সবাইকে নিয়ে কবিতা লেখা যায় না। যাকে নিয়ে কবিতা লেখা হয় তিনি অমর হয়ে যান। শেখ হাসিনা অমর হয়ে গেলেন। কবিরা তাকে নিয়ে যে সব কবিতা লিখেছেন, আমি পড়েছি। বইটি হাতে পেয়ে অভিভুত হয়ে যাই। কবিরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে এমন সব কবিতা রচনা করেছেন, তাতে উঠে এসেছে প্রধানমন্ত্রীর জীবন, কর্ম ও এই জাতির প্রতি তাঁর অগাধ ভালোবাসার চিত্র।
অধ্যাপিকা পান্না কায়সার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বিশ্বের মানুষের কাছে এক অনন্য নেতা হিসেবে আর্বিভুত হয়েছেন। কি কারণে তার এই খ্যাতি, তা হচ্ছে তাঁর দেশ গঠনে অভাবিত পরিশ্রম, আপসহীন কর্মকা- এবং স্বাধীনতার আকাক্সক্ষা অনুযায়ী দেশের উন্নয়নে অসীম সাহস ও দক্ষতার পরিচয় দেয়া।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয় পাতার আরো খবর

Developed by orangebd