ঢাকা : শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • নবম ওয়েজবোর্ড দ্রুত কার্যকর করা হবে : তথ্যমন্ত্রী          দুর্নীতি করলেই যথাযথ ব্যবস্থা : প্রধানমন্ত্রী          ডিএনসিসির উপ-নির্বাচনে বাধা নেই          ফের প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়          মিয়ানমার সংকট : শান্তিপূর্ণ সমাধান চায় জাতিসংঘ          ভারতে ৬ বছরেই নাগরিকত্ব পাবেন বাংলাদেশি অমুসলিমরা
printer
প্রকাশ : ২৮ অক্টোবর, ২০১৮ ১৩:৩৪:৩২
সন্তানদের বলেছি, শিক্ষাই তোমাদের সম্পদ : শেখ হাসিনা
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১০ বছর পরিশ্রম করছি। এ পরিশ্রম আমি আমার নিজের ভাগ্য গড়ার জন্য করিনি। সন্তানদের বলেছি, শিক্ষাটাই তোমাদের বড় সম্পদ। কোনো সম্পদ আমি তোমাদের জন্য রেখে যেতে পারব না। বিদ্যা শিক্ষা দিয়েছি নিজেদের ভাগ্য গড়বে। আমি দেশের মানুষের ভাগ্য গড়তে কাজ করব। দেশের মানুষের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করেছি।

 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৬ এবং ৯৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শিশু-কিশোরদের জন্য আয়োজিত ছবি আঁকা ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এ সব কথা বলেন শেখ হাসিনা।

 

২৬ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

 

শেখ হাসিনা বলেন, দেশের প্রতিটি শিশুর শিক্ষার সুযোগ করে দিতে সরকার শিক্ষার ক্ষেত্র বিস্তৃত করছে। নতুন প্রজন্মকে আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করাই সরকারের মূল লক্ষ্য। আজকের শিশুরা ভবিষ্যতে যাতে সুন্দরভাবে বেড়ে উঠতে পারে এবং বাংলাদেশের পরিচয় দিতে গর্ববোধ করে সে জন্যই আমরা ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ গ্রহণ করেছি। আজকের শিশুরাই পাবে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। তিনি বলেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জীবন সুন্দর ও সমৃদ্ধ করতে সরকার পরিকল্পিতভাবে দেশ গড়ার কাজ করে যাচ্ছে। আমরা যে পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি তাতে আজকের শিশুরা বড় হয়ে এ দেশের জন্য গর্ববোধ করবে।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যে কোনো পরিবারের শিশুরা যেন লেখাপড়া করতে পারে সে জন্য সরকার সব প্রকার সুযোগ সুবিধা দিচ্ছে। বিমামূল্যে বই। গরিব ও মেধাবীদের জন্য বৃত্তির ব্যবস্থা। শিক্ষার্থীদের মায়ের নামে অ্যাকাউন্ট করে তাদের বৃত্তির টাকা প্রেরণ। দেশের স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা বাড়ানো। শিক্ষা ক্ষেত্রে বেশি বরাদ্দ রাখা সবই করছে আমাদের সরকার।

 

তিনি বলেন, আমরা ব্যাপক উন্নয়নের কাজে হাত দিয়েছি। দেশের উন্নয়ন যখন হবে জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়তে পারব। জাতির পিতা যে আকাক্সক্ষা নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছিলেন সেই স্বপ্ন আমরা পূরণ করতে পারব।’

printer
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয় পাতার আরো খবর

Developed by orangebd