ঢাকা : সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পণ্য মজুদ আছে, রমজানে পণ্যের দাম বাড়বে না : বাণিজ্যমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় সরকার          অর্থনৈতিক উন্নয়নে সব ব্যবস্থা নিয়েছি : প্রধানমন্ত্রী          বনাঞ্চলের গাছ কাটার ওপর ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা          দেশের সব ইউনিয়নে হাইস্পিড ইন্টারনেট থাকবে
printer
প্রকাশ : ০৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৬:৩২:৩০
৬ মাসে রফতানি ছাড়িয়েছে ২ হাজার কোটি ডলার
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


চলতি অর্থবছরের (২০১৮-১৯) প্রথম ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) রফতানি আয় ২ হাজার কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে। আগের বছরের তুলনায় এই সময়ে রফতানি প্রবৃদ্ধি ১৪.৪২ শতাংশ। ৩ জানুয়ারি রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) প্রকাশিত সর্বশেষ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
ইপিবির তথ্য থেকে জানা গেছে,২০১৮-১৯ অর্থবছরে সব ধরনের পণ্য রফতানিতে বৈদেশিক মুদ্রার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে তিন হাজার ৯০০ কোটি মার্কিন ডলার। চলতি অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ হাজার ৮৭৮ কোটি ৫০ লাখ ডলার। এ সময়ে আয় হয়েছে ২ হাজার ৪৯ কোটি ৯৮ লাখ মার্কিন ডলার। এ আয় লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৯.১৩ শতাংশ বেশি।
এর আগে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে রফতানি থেকে আয় এসেছিল ১ হাজার ৭৯১ কোটি ৬০ লাখ ডলার। গত অর্থবছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের একই সময়ে রফতানি প্রবৃদ্ধি ১৪.৪২ শতাংশ।
প্রতিবেদনে দেখা যায়, একক মাস হিসেবে গত ডিসেম্বরের রফতানি আয় ৩৪২ কোটি ৬১ লাখ ডলার। যা গত অর্থবছরের ডিসেম্বরের চেয়ে ২.১৮ শতাংশ বেশি। গত বছরের ডিসেম্বরে রফতানি আয় ছিল ৩৩৫ কোটি ৩১ লাখ ডলার।
ইপিবির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, চলতি অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে ১ হাজার ৭০৮ কোটি ৪৯ লাখ ডলারের পোশাক রফতানি হয়েছে। এই আয় গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১৫.৬৫ শতাংশ এবং লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৮.৫১ শতাংশ বেশি। এর মধ্যে নিটওয়্যার খাতের পণ্য রফতানিতে আয় ৮৬৫ কোটি ২৬ লাখ ডলার, যা লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় বেড়েছে ১১.২৩ শতাংশ। গত অর্থবছরের তুলনায় ৬ মাসে নিটওয়্যার খাতে প্রবৃদ্ধি ১৩.৯২ শতাংশ।
অন্যদিকে, ওভেন গার্মেন্ট পণ্য রফতানিতে ৮৪৩ কোটি ২৩ লাখ ডলার আয় হয়েছে, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫.৮৫ শতাংশ বেশি। প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৭.৪৮ শতাংশ।
ইপিবির প্রতিবেদন অনুযায়ী, অর্থবছরের প্রথম ছয়মাসে সবচেয়ে বেশি রফতানি প্রবৃদ্ধি হয়েছে কৃষিপণ্যে। গত অর্থবছরের তুলনায় খাতটিতে রফতানি প্রবৃদ্ধি ৬৬.৮ শতাংশ। তবে, গত ৬ মাসে পাট ও পাটজাত পণ্যের রফতানি আয়ে প্রবৃদ্ধি কমেছে। একই সঙ্গে অর্জিত হয়নি লক্ষ্যমাত্রা। এ সময়ে এ খাত থেকে আয় এসেছে ৪২ কোটি ১০ লাখ ডলার।
তবে চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আয় কম হয়েছে ১.৬৮ শতাংশ। প্রবৃদ্ধিও গত বছরের চেয়ে ১৪.১৮ শতাংশ কম হয়েছে। এ সময়ে আয় হয়েছে ৫৩ কোটি ২৩ লাখ ডলার। এছাড়া গত ৬ মাসে প্রবৃদ্ধি কমেছে মাছ, গ্লাস, জাহাজ রফতানিতে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd