ঢাকা : মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পণ্য মজুদ আছে, রমজানে পণ্যের দাম বাড়বে না : বাণিজ্যমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় সরকার          অর্থনৈতিক উন্নয়নে সব ব্যবস্থা নিয়েছি : প্রধানমন্ত্রী          বনাঞ্চলের গাছ কাটার ওপর ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা          দেশের সব ইউনিয়নে হাইস্পিড ইন্টারনেট থাকবে
printer
প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ১১:৪৫:৪৬
বেনাপোল কাষ্টমসে নতুন ল্যাবরেটরির উদ্ভোধন
এম এ রহিম, বেনাপোল


 


বাংলাদেশ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (শুল্ক নিরাক্ষা-আধুনিকায়ন ও বাণিজ্য বিষয়ক) সদস্য খন্দকার মুহাম্মদ-আমিনুর রহমান ১৩ জানুয়ারি রবিবার সকালে বেনাপোল বন্দর ও কাষ্টম পরিদর্শন করেছেন। পণ্য আমদানি রফতানিতে গতি ফেরাতে কয়েক কোটি টাকা ব্যয়ে কাষ্টম হাউজে নির্মিত ক্যামিক্যাল ল্যাবরেটরী আধুনিকায়ন এর ফিতা কেটে উদ্ধোধন করেন তিনি। এসময় দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। কাষ্টম হাউজ অডিটরিয়ামে বন্দর ব্যবহার কারী বিভিন্ন সংগঠন কাষ্টম, বন্দরসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা ও মত বিনিময় করেন। পরে আন্তর্জাতিক চেকপোষ্ট কাষ্টম ও ইমিগ্রেশন এলাকা পরিদর্শন করেন।
ল্যাবরেটরিটি উদ্বোধনের ফলে স্বল্প সময়ে অল্প খরচে সংশ্লিষ্টরা ক্যামিক্যাল জাতীয় পণ্যসহ বিভিন্ন রাসয়নিক পরীক্ষা করে দ্রুত সময়ে মালামাল খালাস প্রক্রিয়া সম্ভব হবে। কমবে সময়, বাঁচবে অর্থ, উপকৃত হবেন ব্যবসায়িরা। বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্যে আরো গতি ফিরবে বলে আশা করেন তারা।
বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে বৈধপথে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যের সঙ্গে অবৈধ পণ্য পাচার প্রতিরোধে কাষ্টম হাউজ বেনাপোলে বিভিন্ন পণ্যের রাসায়নিক পরীক্ষার অত্যাধুনিক কেমিক্যাল ল্যাব উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (শুল্ক ও নিরীক্ষা আধুনিকায়ন ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্য) খন্দকার আমিনুর রহমান ফিতা কেটে বেনাপোল কেমিক্যাল ল্যাব উদ্বোধন করেন। এ উপলক্ষে বেনাপোল কাষ্টমস হাউজের অফিসার্স ক্লাবে কাস্টমস কর্মকর্তা, সিএন্ডএফ এজেন্টস, ব্যবসায়ীদের সাথে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
কাস্টমস কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বেনাপোল কাষ্টমস হাউজের অফিসার্স  ক্লাবে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য খন্দকার আমিনুর রহমান। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বেনাপোল কাস্টম হাউজের যুগ্ম কমিশনার শাকিলা পারভিন, শহিদুল ইসলাম, ডেপুটি কমিশনার পারভেজ রেজা, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন, সাধারন সম্পাদক এমদাদুল হক লতা, সিএন্ডএফ ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফ, ভারত-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের স্থলবন্দর সাব কমিটির চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বেনাপোল স্থলবন্দর পরিচালক (ট্রাফিক) প্রদোষ কান্তি দাস, বেনাপোল কাস্টম হাউজের অতিরিক্ত কমিশনার জাকির হোসেন, ডেপুটি কমিশনার জাকির হোসেন, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব শামসুর রহমান, সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নুরুজ্জামান, যুগ্ম সম্পাদক মহসিন মিলন, জামাল হোসেন, কাস্টমস বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রমূখ।
সভায় প্রধান অতিথি কিভাবে সরকারের রাজস্ব বাড়ানো ও কাস্টমস হাউজের উন্নয়ন করা যায় সে বিষয়ে দিক নির্দেশনামুলক বক্তব্য প্রদান এবং আগামীতে কাস্টমসের নানা পরিকল্পনার কথাও জানান। বিগত বছর গুলোর তুলনায় এ স্থলবন্দরের আমূল পরিবর্তন, উন্নয়ন,সামাজিক ও মানবিক কার্যক্রম,নিলাম টেন্ডার পদ্ধতিতে সচ্ছতা আনায়ন করায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন কাস্টম কমিশনার বেলাল হোসাইন চৌধুরীকে। তিনি বেনাপোল কাস্টম হাউজকে একটি মডেল হিসেবে তুলনা করেন। পরে তিনি বন্দরে স্থাপিত স্ক্যানিং মেশিন ও বন্দরের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে সন্দেহ ভাজন পণ্যবাহী ট্রাক স্ক্যানার পর্যবেক্ষণ, কাস্টমস, ইন্টিগেটেড চেকপোস্ট ও ইমিগ্রেশনের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd