ঢাকা : বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পণ্য মজুদ আছে, রমজানে পণ্যের দাম বাড়বে না : বাণিজ্যমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় সরকার          অর্থনৈতিক উন্নয়নে সব ব্যবস্থা নিয়েছি : প্রধানমন্ত্রী          বনাঞ্চলের গাছ কাটার ওপর ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা          দেশের সব ইউনিয়নে হাইস্পিড ইন্টারনেট থাকবে
printer
প্রকাশ : ০১ এপ্রিল, ২০১৯ ১৭:১৫:৫০
নওগাঁর মান্দায় গ্যাসের সন্ধান
নওগাঁ সংবাদদাতা


 


নওগাঁর মান্দা উপজেলার কসব ইউ'পির  বনকুড়া গ্রামে গ্যাসের সন্ধান মিলছে। গোটা গ্রামজুড়ে শুধু গ্যাস আর গ্যাস। প্রায় ১ সপ্তাহ আগে গ্রামের ময়েজ উদ্দিনের বাড়িতে স্থাপনকৃত নলকূপ মেরামত করতে গিয়ে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়।
পর্যায়ক্রমে গ্রামের মোজাম্মেল হকের বাড়ি, আব্দুল জব্বারের বাড়িসহ অনেকের নলকূপে গ্যাসের অস্তিত্ব মিলেছে। গ্রামের অন্য নলকূপগুলোতেও পানির পরিবর্তে বের হচ্ছে গ্যাস। গ্যাস বের হওয়ায় কৃষি জমিতে সেচ দেয়ার জন্য স্থাপিত একটি গভীর নলকূপ বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয়রা। স্থানীয়রা বলছেন, নলকূপের পাইপে যে গ্যাস পাওয়া যাচ্ছে তাতে আগুন ধরিয়ে প্রাথমিকভাবে পরীক্ষা করা হয়েছে।
গ্যাসের উদগীরণ দেখতে প্রতিদিনই বিভিন্ন গ্রামের হাজার- হাজার উৎসুক জনতা ভীড়  করছে বনকুড়া গ্রামে। এরই মধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন মান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার খন্দকার মুশফিকুর রহমান ও এসিল্যান্ড এসএম হাবিবুল হাসান।
স্থানীয় বাসিন্দা ময়েজ উদ্দিন প্রামানিক জানান, তার বাড়ির ভেতরে স্থাপনকৃত নলকূপে কয়েকদিন ধরে পানি উঠছিল না। নতুন করে আবারো টিওবয়েলের পাইপ বসাতে গিয়ে গ্যাসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়।
গ্রামের আরেক বাসিন্দা আব্দুল জব্বার জানান, বছর চারেক আগে গ্রামের উত্তর পাশে একটি কৃষি জমিতে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া যায়। সেসময় প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বাপেক্স কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ গ্যাসের নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে যান। এরপর তাদের আর কোনো পদক্ষেপ লক্ষ্য করা যায়নি। তিনি আরও বলেন, প্রায় ৪ বছর পর গ্রামের নলকুপগুলোতে আবারও গ্যাসের সন্ধান পাওয়া গেল।
গ্রামের মোজাম্মেল হক, ইয়াকুব আলী, তয়েজ উদ্দিনসহ আরও অনেকে জানান, গ্রামের ময়েজ উদ্দিনের বাড়ির পর একে একে অনেকের বাড়ির নলকূপে গ্যাস বের হতে শুরু করেছে।
মান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) খন্দকার মুশফিকুর রহমান জানান, ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। দুর্ঘটনা এড়াতে নলকূপের পাইপের গ্যাসে আগুন না জ্বালানোর জন্য গ্রামের লোকজনকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে। বিষয়টি ভূ-তাত্বিক জরিপ অধিদপ্তর ও বাপেক্স কর্তৃপক্ষকে লিখিত আকারে জানানো হবে। এটি মিথেন গ্যাস বলেও জানান তিনি।
নওগাঁর সরকারি কলেজের ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মো.মিজানুর রহমান বলেন, বিভিন্ন কারণে ভূ-অভ্যন্তরের অগভীরে কয়লা ও মিথেন গ্যাসের অস্তিত্ব থাকতে পারে। সঠিক পরীক্ষার মাধ্যমে মান্দার বনকুড়া গ্রামের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
সারা দেশ পাতার আরো খবর

Developed by orangebd