ঢাকা : সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর          ডিএসসিসির ৩,৬৩১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা          রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর          সংলাপের জন্য ভারতকে ৫ শর্ত দিল পাকিস্তান          এরশাদের শূন্য আসনে ভোট ৫ অক্টোবর          বাংলাদেশে আইএস বলে কিছু নেই : হাছান মাহমুদ
printer
প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল, ২০১৯ ১৮:২২:১৮
অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশের ১৫ বছর পূর্তি


 


২০০৪ সালের ৪ এপ্রিল স্বল্প সংখ্যক শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করে অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন। স্বেচ্ছাসেবী, সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেখতে দেখতে ১৫তম বছর পূর্ণ করল। শিক্ষার্থীদের নানা প্রতিভার বিকাশকে সকলের মধ্যে ছড়িয়ে দিতেই ১২তম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস ও সংস্থার ১৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন আয়োজন করেছে ১২ দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার। এরই আলোকে ৫ এপ্রিল “জঁহহবৎ অডঋ ঠড়পধঃরড়হধষ ঞৎধরহরহম ঈবহঃবৎ উদ্বোধন, অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন এর শিক্ষার্থীদের তৈরি পণ্য দিয়ে হস্তশিল্প মেলা উদ্বোধন এবং অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
“জঁহহবৎ অডঋ ঠড়পধঃরড়হধষ ঞৎধরহরহম ঈবহঃবৎ ও অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন এর শিক্ষার্থীদের তৈরি পণ্য দিয়ে হস্তশিল্প মেলা উদ্বোধনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সুচনা করেন রানার প্রুপ অব কোম্পানিজের চেয়ারম্যান ও অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন এর সদস্য হাফিজুর রহমান খান।
অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন ডাঃ রওনাক হাফিজ স্বাগত বক্তব্যের পর পরই ধারাবাহিকভাবে পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালা মূলপর্বের। শিক্ষার্থীদের রঙিন পোষাকের আভা, মনোমুগদ্ধকর পরিবশেনা, নৃত্যের ছন্দ আর সুরের মূর্চ্ছনায় হলে উপস্থিত সকলে বিমোহিত হয়ে যায়।
অটিজম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন এর নিজস্ব মাল্টিপারপাস অডিটোরিয়ামে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রানার প্রুপ অব কোম্পানিজের  চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান, বিশেষ অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার চেয়ারপারসন ডাঃ রওনাক হাফিজ, সদস্য স্থপতি মাসুম কবির, কোষাধ্যক্ষ ডাঃ শারমীন ইয়াসমিন। এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সাংস্কৃতিক অঙ্গনের শিল্পীবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কুশলী ও সাংবাদিকবৃন্দসহ সংস্থার সকল শুভ্যানুধায়ী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ ছিল ভোকেশনাল শিক্ষার্থীদের তৈরি পোষাকে শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের ফ্যাশন শো। এখানে উল্লেখ্য যে প্রায় প্রতিটি শিক্ষার্থী সাহায্য ছাড়াই সাবলীলভাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে। মুহুর্মুহ করতালী দিয়ে তাদের উপস্থপনাকে স্বাগত জানান উপস্থিত সকল দর্শক ¯্রােতা।
উপস্থিত অভিভাবক ও অতিথিবৃন্দ মেলার বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন এবং বিশেষ শিশুদের প্রতিভার প্রশংসা করেন। মেলায় প্রদর্শিত উল্লেখযোগ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিল বেডশীট, থ্রীপিছ, শোপিছ, মোম শোপিছ, পেপার শোপিছ,  ফটোফ্রেম, টিস্যু বক্স, মালা ইত্যাদি।  মেলা ১০টা হতে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সবার জন্য থাকবে উন্মুক্ত ছিল। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
সারা দেশ পাতার আরো খবর

Developed by orangebd