ঢাকা : বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পণ্য মজুদ আছে, রমজানে পণ্যের দাম বাড়বে না : বাণিজ্যমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় সরকার          অর্থনৈতিক উন্নয়নে সব ব্যবস্থা নিয়েছি : প্রধানমন্ত্রী          বনাঞ্চলের গাছ কাটার ওপর ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা          দেশের সব ইউনিয়নে হাইস্পিড ইন্টারনেট থাকবে
printer
প্রকাশ : ৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:১৪:৪৩আপডেট : ৩০ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:১৭:৪৮
কোমর ব্যথা হলেই কি বেড রেস্ট?
প্রফেসর ডা. আলতাফ সরকার

 

বেড রেস্ট আমাদের কাছে সুন্দর আরগ্য লাভের প্রক্রিয়া মনে হলেও আসলে এটি একটি বিভ্রান্তি। আল্লাহপাক আমাদের সৃষ্টি করেছেন অনেকগুলো কাজ করার জন্য তারমধ্যে অন্যতম কাজগুলোর একটি হাঁটাচলা করা। যখনি আমরা দীর্ঘ সময় ধরে বিশ্রাম করতে থাকবো তখনি আমাদের শরীরে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতেই পারে।
কোমর ব্যথা এমন একটি সমস্যা যে কারণে মানুষ সবচেয়ে বেশী চিকিৎসকের কাছে গিয়ে থাকে। যখন আমাদের কোমরে ব্যথা হয় তখনি আমরা বিশ্রাম নিতে চাই এবং অনেক বছর ধরে ব্যথায় বিশ্রাম নেওয়া একটি উপদেশ তথা চিকিৎসা হিসেবে চলে আসছে। কিন্তু বর্তমান গবেষণায় বলা হচ্ছে দীর্ঘ সময় ধরে বিশ্রাম করলে আমাদের মেরুদন্ডে অনেক সমস্যা দেখা দেয়। মেরুদন্ডে সমস্যা হলে ডিক্সেও অনেক সমস্যা হয়। আমাদের মেরুদন্ডে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মসেল হল ইরেক্ট স্পাইন এবং এ মাসেল মেরুদন্ডের দুই পাশে থাকে। গবেষণায় দেখা গেছে এবং সাইন্স প্রমাণ করেছে ইরেক্ট স্পাইন মাসেল ঠিকমত ব্যবহার না করলে খুব কোমর ব্যথা হলেই কি বেড রেস্ট?
তাড়াতাড়ি অসুস্থ হয়ে যায়। ইরেক্টর স্পাইন এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যা বসা এবং দাঁড়ানো অবস্থায় মেরুদন্ড  সোজা রাখতে সাহায্য করে। ডিক্স খুব অল্প পরিমাণে রক্ত সঞ্চালন করে, অল্প রক্ত সঞ্চালন মানে অল্প অক্সিজেন এবং নিউট্রিশন। দীর্ঘ সময় ধরে শুয়ে থাকলে আরও রক্ত সঞ্চালন কমে যায় , অক্সিজেন এবং নিউট্রিশনের পরিমাণও কমে যায়। ফলে আরোগ্য হতে আরও বেশী সময় লাগে। দীর্ঘ সময় বেড রেস্ট শরীরের সকল কার্যক্রম ধীর স্থীর করে দেয় ফলে আমাদের শরীরের অনান্য সমস্যা অনেক অনেক গুণ বেড়ে যায়। সম্প্রতি বলা হয়েছে, কোন বিশ্রাম আবশ্যক নেই। অধিক সময় বিশ্রাম নিলে সে বিশ্রাম এর জন্য আমাদের সুস্থ হতেও বাধা গ্রস্থ করে। যেমন :
১. দীর্ঘ সময় বিশ্রাম তাড়াতাড়ি সুস্থ হতে সাহায্য করে না। যদি আপনার প্রচন্ড ব্যথা হয় তাহলে সারাদিন শুয়ে আরাম করা আপনার জন্য ভালো ধারণা মনে হতে পারে কিন্তু আপনার কাজগুলো করা এবং সারাদিন অ্যাকটিভ থাকা আপনার সমস্যার সিমটমগুলো অনেক নিয়ন্ত্রন রাখে। এছাড়াও দিনের পর দিন বিশ্রাম কোমর ব্যথা প্রতিরোধে কোনো সাহায্য করে না। মানুষ কোনো রকম বিশ্রাম ছাড়াই তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়। যত তাড়াতাড়ি আপনি হাঁটাচলা শুরু করবেন এবং আপনার দৈনন্দিন কাজে ফিরে যাবেন তত তাড়াতাড়ি আপনি সুস্থ হবেন।
২. দীর্ঘ সময় বিশ্রাম লিড টু স্লো রিকভারি ঃ দীর্ঘ সময় ধরে শুয়ে থাকলে মাংশপেশী স্টিফ হয় এবং ব্যথা বেড়ে যায়। শারিরিক মুভমেন্ট না হলে মাংশপেশীর শক্তি এবং ফেøক্সিবিলিটি কমে যায়। দীর্ঘ দিন বিশ্রামে থাকলে প্রতিদিন ১% করে মাসেল স্ট্রেন্থ কমতে থাকে। কখনও কখনও অতিরিক্ত বিশ্রামে প্রতি সপ্তাহে ২০% থেকে ৩০% স্ট্রেন্থ কমতে পারে। একবার মাসেল দুর্বল হয়ে গেলে, স¦াভাবিক জীবণে ফিরে আসা অনেক কঠিন হয়ে পড়ে। দীর্ঘ সময় বিশ্রামে আপনার কোমর কিছুটা ভালো বোধ করলেও অন্যান্য সমস্যাগুলো বেড়ে যায়। আপনার হজমের সমস্যা হতে পারে। যেমন- কোষ্ঠকাঠিন্য। ব্রেন আমাদের শরীরের সমস্ত ফাংশন নিয়ন্ত্রন করে। দীর্ঘ সময় বেড রেস্ট আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের উপর অনেক প্রভাব ফেলে শারিরীক দুর্বলতা বৃদ্ধির সাথে সাথে হতাশাও বেড়ে যায়।
৩. তাহলে বেড রেস্ট কার প্রয়োজন? অষসড়ংঃ হড় ড়হব (কারো না)। কিন্তু যাদের আনস্টেবল ফ্যাকচার এবং যারা  সার্জারির জন্য অপেক্ষা করছে তারা বেড রেস্ট করতে পারে।
৪. ব্যথা হলে কি করবেন?
হঠাৎ জয়েন্ট ব্যথা হলে তৎক্ষণিক ব্যথার স্থানে নারিকেল তেল লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট ঠান্ডা শেক নিন। নিকটস্থল মাস্কুলোস্কেলিটাল ডিসঅর্ডার বিশেষজ্ঞ পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা নিন। এমন অনেক খাবার আছে যেগুলো ব্যথা কমায় সেই সব খাবার খাবেন যেমন ঃ মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) ব্যথা নিরাময়ে কিছু প্রাকৃতিক ঔষধের কথা বলেছেন। যেমন- মধু (ব্যথার স্থানে মধুর সাথে ভিনেগার মিশিয়ে মাখালে ব্যথা কমে) খেজুর, কালো জিরা, ওলিভ অয়েল, তরমুজ ইত্যাদি খাবার ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও লাল আটার রুটি, লাল চালের ভাত খান, প্রচুর পানি পান করুন। গরু, খাসী এবং মহিষের মাংস খাবেন না। প্রতিদিন ৩০ মিনিট গাঁয়ে রোদ লাগান। ধূমপান বর্জন করুন। প্রতিদিন এক্সারসাইজ করুন। বিশেষভাবে মনে রাখবেন, এক্সারসাইজ ব্যথা কমায়। সঠিক ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা কোমর ব্যথা থেকে মুক্তি দেয়। ফিজিওথেরাপি ইজ মেডিসিন ফর টুডে অ্যান্ড টুমোরো, এক্সারসাইজ ইজ মেডিসিন ফর টুডে অ্যান্ড টুমোরো। সুতরাং বিছানায় আবদ্ধ না থেকে সঠিক ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা নিন। ব্যথামুক্ত জীবণযাপন করুন এবং সুস্থ থাকুন।
লেখক : প্রফেসর ডা. আলতাফ সরকার, মাস্কুলোস্কেলিটাল ডিজঅর্ডারস বিশেষজ্ঞ
লেজার ফিজিওথেরাপি সেন্টার
৪৪/৮, পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা। ০১৭৬৫ ৬৬৮৮৪৬

printer
সর্বশেষ সংবাদ
স্বাস্থ্য ও জীবন পাতার আরো খবর

Developed by orangebd