ঢাকা : মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯

সংবাদ শিরোনাম :

  • পণ্য মজুদ আছে, রমজানে পণ্যের দাম বাড়বে না : বাণিজ্যমন্ত্রী          বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনতে চায় সরকার          অর্থনৈতিক উন্নয়নে সব ব্যবস্থা নিয়েছি : প্রধানমন্ত্রী          বনাঞ্চলের গাছ কাটার ওপর ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা          দেশের সব ইউনিয়নে হাইস্পিড ইন্টারনেট থাকবে
printer
প্রকাশ : ২০ জুন, ২০১৯ ১৭:১৫:২২
বাংলাদেশ-ভারত পণ্য রপ্তানিতে আয় করে
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশই উভয় দেশে পণ্য রপ্তানি করে আয় করে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকায় ভারতীয় ডেপুটি হাইকমিশনার বিশ্বদীপ দে।
তিনি বলেন, বিশ্বায়নের এ যুগে প্রতিটি দেশের রপ্তানি আয়ের খাত অর্থনৈতিক উন্নয়নে বড় অবদান রাখছে। বাংলাদেশ অবকাঠামোগত উন্নয়ন করায় আধুনিক নির্মাণশিল্পের চাহিদা রয়েছে। বাংলাদেশ ও ভারতের বাণিজ্য সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। দুই দেশই উভয় দেশে পণ্য রপ্তানি করে আয় করে।
আজ বৃহস্পতিবার বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে তিন দিনব্যাপী 'বাংলাদেশ বিল্ডকন-২০১৯’ এবং ‘জেট প্রেজেন্টস বাংলাদেশ উড-২০১৯’ শীর্ষক প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশ্বদীপ দে একথা বলেন।
তিনি বলেন, এ প্রদর্শনীতে ৮০টি ভারতীয় কোম্পানি অংশ নেওয়ায় আমি খুবই আনন্দিত।
বাংলাদেশের দ্রুত বর্ধমান অর্থনীতির ভূয়সী প্রশংসা করে বিশ্বদীপ দে বলেন, বাংলাদেশ সরকার ব্যাপক অবকাঠামো উন্নয়ন কাজ করছে। এ খাতে বিদেশিরাও বিনিয়োগ করছে। আমি আগামীতে বাংলাদেশের আরো সম্ভাবনা দেখছি।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের সুপারিনটেন্ডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার আ ন ম এনায়েত উল্লাহ, ফার্নিচার সেক্টর ইন্ডাস্ট্রি স্কিল কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মো. আবু ইউসুফ, হাউজিং অ্যান্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক মোহাম্মদ শামীম আখতার, বাংলাদেশ ফার্নিচার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান কে এম আক্তারুজ্জামান, ফিউচারেক্স ট্রেড ফেয়ার অ্যান্ড ইভেন্টস প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রেম আনভেশি, আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশন প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালক নন্দ গোপাল ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক টিপু সুলতান ভূইঁয়া।
বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির গুলনকশা, পুষ্পগুচ্ছ ও রাজদর্শন হলে তিন দিনব্যাপী 'বাংলাদেশ বিল্ডকন-২০১৯’ এবং ‘জেট প্রেজেন্টস বাংলাদেশ উড-২০১৯’ শীর্ষক প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে ভারতের আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশনস প্রাইভেট লিমিটেড ও ফিউচারেক্স ট্রেড ফেয়ার অ্যান্ড ইভেন্টস প্রাইভেট লিমিটেড। এই যৌথভাবে তাদের পঞ্চম আসর।
এ দুই প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ, চীন, ভারত, তুরস্ক, হংকং, যুক্তরাষ্ট্র, শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রিয়া, মালয়েশিয়া ও ইতালির ২৫০টি প্রতিষ্ঠান তিন হাজারেরও বেশি পণ্য তুলে ধরছে। তিন দিনের প্রদর্শনী শেষ হবে ২২ জুন। প্রদর্শনী প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ-বাণিজ্য পাতার আরো খবর

Developed by orangebd