ঢাকা : বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সংবাদ শিরোনাম :

  • সিরাজগঞ্জে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৫          ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১৮          দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় খুলবে ২৪ মে : শিক্ষামন্ত্রী          ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ দেবে সরকার’          টিকা ব্যবস্থাপনা নিয়ে মিথ্যাচার করছে বিএনপি : ওবায়দুল কাদের          করোনায় মৃত্যু দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহতের সংখ্যাকে ছাড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র
printer
প্রকাশ : ১১ জুলাই, ২০২০ ২২:১০:১০আপডেট : ১১ জুলাই, ২০২০ ২৩:২৪:৪৭
সন্তানদের ফেলে যাওয়া বৃদ্ধ শিক্ষকের দায়িত্ব নিলেন চট্টগ্রামের মাসুক ইন্তেজাম
বিপ্লব বিজয়


 

মানবতার এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন চট্টগ্রামের সন্তান তরুণ ব্যবসায়ী-উদ্যোক্তা এম আই টেস্কটাইল প্রাইভেট লিমটিডে-এর চেয়ারম্যান মাসুক ইন্তেজাম। তিনি সন্তানদের ফেলে যাওয়া একজন বৃদ্ধ শিক্ষকের দায়িত্ব নিলেন। উল্লেখ্য, মানুষ তৈরির কারিগর একজন স্কুল শিক্ষক; যিনি সারাজীবন শিক্ষকতা করেছেন এবং জ্ঞান দান করেছেন দেশের অসংখ্য শিক্ষার্থীর। অথচ ভাগ্যের নির্মম পরিহাস তাঁরই সন্তানেরা রাস্তায় ফেলে দিয়ে চলে গেলেন। চলমান জীবনের ৩২ বছর শিক্ষকতা করেছেন এই বৃদ্ধ। অবসর গ্রহণের পর সন্তানেরা রাস্তায় ফেলে চলে যান; এরপর  চট্টগ্রামের বায়োজিদ  বোস্তামীর মাজারে পড়ে থাকতেন তিনি। কেউ খোঁজ নিতে আসেনি। এভাবে তিন বছর চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে ঘুরাঘুরির পর কিছু মহানুভব মানুষের সহযোগিতায় ঢাকার মিরপুরে অবস্থিত  চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইস কেয়ারে এই বৃদ্ধ শিক্ষকের স্থান হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই করুণ কাহিনী প্রচার হওয়ার পর মানবতাবাদী তরুণ ব্যবসায়ী-উদ্যেক্তা চট্টগ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এম আই টেস্কটাইল প্রাইভেট লিমিটেড-এর চেয়ারম্যান মাসুক ইন্তেজাম ছুটে যান ঢাকার ওই প্রতিষ্ঠানে এবং কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে এই মানুষ তৈরির কারিগর শিক্ষকের ভরণ-পোষণের দায়িত্ব তুলে নেন। নিজের সন্তানেরা জন্মদাতা পিতাকে যেখানে রাস্তায় ফেলে চলে গেলেন সেখানে এই মানব দরদী তরুণ ব্যবসায়ী মাসুক ইন্তেজাম দায়িত্ব নিলেন পরম স্নেহে এই শিক্ষকের। এ প্রসঙ্গে টাইমওয়াচ প্রতিনিধিকে মাসুক ইন্তেজাম বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই দৃশ্য দেখার পর আমি আমার কোম্পানির বেশ ক‘জন কর্মকর্তাকে ওই প্রতিষ্ঠানে পাঠাই এবং সঠিক তথ্য উপাত্ত নিয়ে নিশ্চিত হই ওই বৃদ্ধ শিক্ষক ওখানে রয়েছেন কী-না? নিশ্চিত হওয়ার পর ওই  প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মিল্টন সাতাদ্দার-এর সঙ্গে আমি নিজে কথা বলি; কথা বলার পর আমি চট্টগ্রামের মানুষ হিসেবে মানুষ তৈরির কারিগর শিক্ষকের দায়িত্ব গ্রহণ করি। এভাবে তিনি তাঁকে নিজ কাঁদে তুলে নেন। বিশ্বে এক মানবতার কাজ করে দৃস্টান্ত স্থাপন করলেন তরুণ উদ্যোক্তা মাসুক ইন্তেজাম। যেখানে নিজের সন্তানদের কাছে জায়গা হলো না এই বৃদ্ধের সেখানে অন্য কারো সন্তান সেই পিতার দায়িত্ব নিলেন। মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য; মানবতার জয় হোক । আর কোনো পিতার স্থান যেন বৃদ্ধাশ্রমে না হয়, সন্তানদের বুকেই হোক বৃদ্ধ পিতার নিরাপদ আবাস।

 

printer
সর্বশেষ সংবাদ
বিশেষ প্রতিবেদন পাতার আরো খবর

Developed by orangebd