ঢাকা : বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সংবাদ শিরোনাম :

  • সিরাজগঞ্জে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৫          ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১৮          দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় খুলবে ২৪ মে : শিক্ষামন্ত্রী          ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ দেবে সরকার’          টিকা ব্যবস্থাপনা নিয়ে মিথ্যাচার করছে বিএনপি : ওবায়দুল কাদের          করোনায় মৃত্যু দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহতের সংখ্যাকে ছাড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র
printer
প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৮:১২:১৬
জনপ্রিয় অভিনেতা কে এস ফিরোজ আর নেই
টাইমওয়াচ রিপোর্ট


 


জনপ্রিয় অভিনেতা কে এস ফিরোজ আজ বুধবার ভোরে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)।
অভিনেতা কে এস ফিরোজের মেয়ে নাদিয়া ফিরোজ জানান, তার বাবা নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত ছিলেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনি ৩০ আগস্ট থেকে সিএমএইচে চিকিৎসাধীন ছিলেন।
তিনি জানান, চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুইবার তার বাবার স্ট্রোক হয়। বুধবার দ্বিতীয় স্ট্রোকে তার মৃত্যু হয়েছে।
শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে আজ বাদ জোহর বনানী সেনানিবাস কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে নাদিয়া জানান।
কে এস ফিরোজ ১৯৬৭ সালে সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। মেজর হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে ১৯৭৭ সালে সেনাবাহিনী থেকে অবসর নেন। তার পুরো নাম খন্দকার শহীদ উদ্দিন ফিরোজ। তিনি ১৯৪৬ সালের ৭ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন। বরিশালের উজিরপুরের মশাং গ্রামে তাদের আদি নিবাস হলেও ফিরোজের জন্ম ঢাকার লালবাগে। তার বাবার নাম এ জে এম সাইদুর রহমান। তবে এলাকার মানুষ তার বাবাকে উজির মিয়া নামেই চিনতেন। কে এস ফিরোজের মা রাবেয়া খাতুন। ফিরোজ ১৯৭৪ সালের ১ নভেম্বর বিয়ে করেন। তিনি স্ত্রী মাধবী ফিরোজ এবং তিন মেয়ে রেখে গেছেন।
নাট্যদল ‘থিয়েটার’-এর সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে অভিনয়ে কে এস ফিরোজের পথচলা শুরু। এই দলের হয়ে তিনি অভিনয় করেছেন ‘সাত ঘাটের কানাকড়ি’, ‘কিং লিয়ার’ ও ‘রাক্ষসী’ নাটকে।
মঞ্চ, টিভি ও সিনেমায় তার ছিলো সফল পদচারণা। বেশকিছু বিজ্ঞাপনেও প্রশংসিত অংশগ্রহণ ছিলো তার। কে এস ফিরোজ জনপ্রিয় অভিনেতা ছিলেন দর্শকপ্রিয় টেলিভিশন ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র মাধ্যমে।
অনুষ্ঠানটির উপস্থাপক, পরিচালক, লেখক ও প্রযোজক হানিফ সংকেত তার এক ফেইসবুক স্টাটাসে বলেন, ‘ইত্যাদি’র শুরুর দিক থেকেই এর নিয়মিত অভিনেতা ছিলেন সদ্য প্রয়াত অভিনেতা কে এস ফিরোজ।

printer
সর্বশেষ সংবাদ
বিনোদন পাতার আরো খবর

Developed by orangebd